জাতীয়

আ.লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে জয়পুরহাটে ঝাড়ু মিছিল

জয়পুরহাট সদর ও কালাই উপজেলা শহরে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছিল, কুশপুত্তলিকা দাহ ও সমাবেশ করেছে আওয়ামী লীগের একাংশের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা।

এর আগে শনিবার রাতে পূর্ব পুরুষদের স্বাধীনতা বিরোধীতার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট থাকার অভিযোগে জয়পুরহাট জেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কালাই উপজেলা চেয়ারম্যান মিনফুজুর রহমান, সদস্য ও ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুস এবং শওকত হাবিব লজিককে বহিষ্কার করেছে জেলা কমিটি।

রোববার সন্ধ্যায় জয়পুরহাট জেলা শহরে বিক্ষোভ মিছিল শেষে সভাপতি ও স্থানীয় সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সামছুল আলম দুদু ও সাধারণ সম্পাদক এস.এম সোলায়মান আলীর কুশপুত্তলিকা দাহ করে জেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের একাংশের নেতাকর্মীরা। এর আগে বিকেলে একই ঘটনার প্রতিবাদে কালাই উপজেলা শহরেও ঝাড়ু মিছিল শেষে তাদের কুশপুত্তলিকা দাহ করে উপজেলা আওয়ামী লীগের একাংশ।

জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মিজানুর রহমান টিটো এক প্রেস নোটে জানান, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কালাই উপজেলা চেয়ারম্যান মিনফুজুর রহমান মিলনের দাদা ও তার চাচা জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও পুনট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুস এবং অপর সদস্য ও মাত্রাই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান লজিক তালুকদারের বাবা স্বাধীনতা বিরোধী হওয়ায় জেলা আওয়ামী লীগের জরুরি সভায় তাদের দল থেকে বহিষ্কার করা হয়।

এরই প্রতিবাদে জয়পুরহাট সদর ও কালাই শহরে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা মিছিল শেষে দলীয় কার্যালয়ের সামনে ওই সমাবেশে দলের জেলা সভাপতি ও সম্পাদককে অবাঞ্ছিত ঘোষণা দিয়ে তাদের কুশপুত্তলিকা দাহ করে।

জয়পুরহাট শহরের জিরো পয়েন্টে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, জয়পুরহাট পৌর মেয়র ও আওয়ামী লীগ নেতা মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক, আক্কেলপুর পৌর মেয়র গোলাম মাহফুজ চৌধূরী অবসর, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি এ ই এম মাসুদ রেজা প্রমুখ।