আন্তর্জাতিক

‘পাকিস্তান মানেই নারীদের জন্য বিপদের কারখানা’

সাত বছরের শিশু জয়নাবকে ধর্ষণের পর হত্যার বিচার দাবিতে বিক্ষোভ করছেন পাকিস্তানের নাগরিকরা। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমেও অসংখ্য মানুষ জাসটিস ফর জয়নাব হ্যাশট্যাগে বিচারের দাবি জানাচ্ছেন।

অবশ্য পাকিস্তানে এ ধরনের ঘটনা নতুন নয়। আন্দোলনের মধ্যেই দেশটিতে ১৩ বছরের এক ছেলেকে যৌন হয়রানির খবর পাওয়া গেছে। ২০১৭ সালে কাসুর জেলাতেই ১২ জন শিশু জয়নাবের মতো ঘটনার শিকার।

শিশুদের সুরক্ষার ব্যাপারে কাজ করে এমন একটি দল সাহিল। তারা জানিয়েছে, গত বছরের ছয় মাসেই এক হাজার সাতশ ৫০ টি ঘটনা ঘটেছে শিশু নির্যাতনের। তার মধ্যেই পাঞ্জাব প্রদেশে ৬৫ শতাংশ ঘটনা ঘটেছে।

পাকিস্তানের একজন অ্যাক্টিভিস্ট কয়েক দশক ধরে নারী, যৌনকর্মী, যৌন হয়রানি এবং ধর্ষণের ঘটনা নিয়ে কাজ করছেন। আলজাজিরার কাছে ফৌজিয়া সাইয়ীদ নামের ওই অ্যাক্টিভিস্ট জানান, ১৯৯১ সাল থেকে পাকিস্তানের নারীদের সঙ্কট খুব কাছ থেকে দেখে মনে হয়েছে, নারীদের জন্য বিপদের কারখানা হলো পাকিস্তান।

তিনি আরো বলেন, আমি কয়েকশ এরকম ঘটনা পর্যবেক্ষণ করেছি। মানুষজন জানতে চাই, ধর্ষণের শিকার শিশুর বাবা-মা তখন কোথায় ছিলেন। তারা কেন আরো যত্নবান হলেন না। অভিভাবকদেরই দোষ দেন বেশিরভাগ লোক।

তিনি আরো বলেন, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে একবারের জন্যও কেউ বলেন না, মাত্র ছয় বছর কিংবা চার বছরের শিশুর অপরাধ কী? কেন তাকে এভাবে ধর্ষণ করে হত্যা করা হলো? তাদের অভিযোগ দেখে মনে হয়, নারীদের জন্য পাকিস্তানে এটাই নিয়তি!

সূত্র : আলজাজিরা

জুমবাংলানিউজ/এসওআর