Exceptional আন্তর্জাতিক লাইফ স্টাইল স্লাইডার

সফলতার চাবিকাঠি (পর্ব-২)

আমাদের জীবনে প্রতি মুহূর্তেই কোন না কোন সিদ্ধান্ত নিতে হয়। কোনো কোনো সিদ্ধান্ত কম গুরুত্বপূর্ণ হলেও এমন কিছু সিদ্ধান্ত রয়েছে যা জীবনের জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ। এ ধরণের সিদ্ধান্ত  নিতে ভুল করলে মাশুল সারা জীবন দিয়ে যেতে হয়।

কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়য়ের একটি গবেষণায় দেখা যায়, আমরা দিনে প্রায় ৭০টি ছোট বড় সিদ্ধান্ত নেই।

ব্রন্নী হলেন হসপিটালে কর্মরত একজন নার্স। সে বিশেষত এমন রোগীদের সেবা করে যারা ৩ থেকে ১২ মাসের মধ্যে মারা যাবে। তাদের জীবনের শেষ পর্যায়ে এসে তারা কি নিয়ে আফসোস করে সেটি জিজ্ঞেস করা ব্রন্নীর একটি অভ্যাসে পরিণত হয়েছিল।

এভাবে জানতে গিয়ে সে অধিকাংশ রোগীদের কাছ থেকে কয়েকটি বিষয় নিয়ে বারংবার আফসোসের কথা শুনতে পায়। ব্রন্নী উপলব্ধি করে সঠিক সিদ্ধান্ত নেয়া কতটা জরুরী।

রোগীদের অধিকাংশই উপলব্ধি করেন, যদি তারা মানুষ কি ভাববে সেটি মনে করে সিদ্ধান্ত না নিতেন তাহলেই ভালো হতো…

অন্যেকে খুশি রাখতে গিয়ে আপনি ভুল ক্যারিয়ার বেছে নেন। পৃথিবীতে অসংখ্য মানুষ রয়েছে যারা শুধু পাশ করার জন্য, একটি ডিগ্রির জন্য পড়াশুনা করেন। অনিচ্ছা সত্ত্বেও যে বিষয়ে আগ্রহ নেই সেই লাইনেই ক্যারিয়ার নিয়ে ছুটোছুটি করেন। অথচ আপনাকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে আপনি কি বাবা মার মন রক্ষা করবেন? ভালো না লাগলেও যে পেশায় টাকা বেশী সেটি বেঁছে নেবেন? নাকি যে কাজের প্রতি আপনি অসীম আগ্রহ অনুভব করেন,  যে কাজ আপনি ভালো পারেন, সে কাজটি ক্যারিয়ার হিসেবে বেছে নিবেন।

রোগীদের অনেকেই মনে করেন, যদি তারা পরিবারকে আরও সময় দিত…

শেখার জন্য, ভালো কিছু করার জন্য, বেড়ে উঠার জন্য কঠিন কাজ করা, কঠোর পরিশ্রম করা অবশ্যই প্রয়োজনীয়। তবে এটি একটি সমস্যাতে পরিণত হয় যখন আপনি কাজে ব্যস্ত থাকার কারণে আপনার কাছের মানুষদের সময় দিতে পারেন না। আপনি আপনার সন্তানদের জন্য কঠোর পরিশ্রম করে টাকা পয়সা উপার্জন করছেন কিন্তু তাদেরকে যদি সময় দিতে না পারেন তাহলে বিষয়টা দুঃখজনক। এর থেকে উত্তোরণের সহজ উপায় আপনি যে কাজকে ভালোবাসেন সেটি এবং যে মানুষগুলোকে আপনি ভালবাসেন তার মধ্যে একটি ভারসাম্য রক্ষা করা।

রোগীদের  মধ্যে বেশিরভাগই মনে করেন, তারা তাদের আনন্দের সময়গুলোকে আরও বেশি উপভোগ করতে পারতো…

আমরা বেশীর ভাগ সময় আমাদের দুঃখ গুলোকেই বড় করে দেখি কিন্তু সুখগুলোর কথা ভুলে যাই। আমরা ভুলে যাই, আমাদের কান্নার জন্য একটি কারণ থাকলে, হাসির জন্যেও আরেকটি কারণ থাকে। তবে কেন আমরা হাসির বদলে কেবল কান্নাকেই বেঁছে নিব? হাসি মুখে থাকুন, আনন্দ প্রকাশ করুন, আনন্দগুলো প্রিয়জনদের সাথে ভাগাভাগি করে নিন।

আপনি সব সময় একটি ব্যাপার মাথায় রাখবেন, অনেকেই অনেক কথা বলবে, তাদের কথা শুনুন তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তটা আপনার বিবেক যা বলে সেটিই নিন। জীবনটা আপনার। যদি ভুক্তভোগী হন তবে কষ্ট আপনাকেই ভোগ করতে হবে তারা তখন কেউ আপনার কষ্টের বোঝা বহন করবে না।

স্টিফেন কর্ভে এর উক্তি দিয়ে শেষ করতে চাই, আমি আমার পরিণতির জন্য দায়ী না, আমি আমার সিদ্ধান্তের জন্য দায়ী। কারণ আমার সিদ্ধান্তই আমাকে পরিণতির দিকে নিয়ে যায়।

ট্যালেন্ট স্মার্ট’এর সভাপতি এবং বেস্ট সেলিং বই ‘ইমোশনাল ইন্টেলিজেন্স ২ দশমিক ০’ এর সহলেখক ট্রাভিস ব্রাডবেরির লেখা নিবন্ধ ‘ফাইভ  চয়েজ ইউ উইল রিগ্রেট ফরেভার’ অবলম্বনে মেহেদী হাসান দ্বীপ । 

জুমবাংলানিউজ/ এমএইচডি



সর্বশেষ খবর