slider অর্থনীতি-ব্যবসা জাতীয়

বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধির জন্য নতুন চালক দরকার: এডিবি

বাংলাদেশর প্রবৃদ্ধির জন্য ভবিষ্যতে নতুন চালক খোঁজা দরকার বলে মনে করে এশিয়ান উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। সম্প্রতি সংস্থাটির নিজস্ব এক পর্যালোচনায় বিষয়টি উঠে আসে।

বাংলাদেশের অর্থনীতিতে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে প্রবৃদ্ধির দুইটি ঐতিহ্যগত চালক রপ্তানি ও প্রবাসী আয়ের (রেমিটেন্স) অবদান দুর্বল হয়ে পড়েছে বলে জানায় এডিবি।

এডিবি জানায়, রপ্তানি-জিডিপির অনুপাত সাম্প্রতিক বছরে ১৫ শতাংশের নিচে নেমে গেছে। যা পাঁচ বছর আগে ২০ শতাংশের কাছাকাছি ছিল। একই ভাবে রেমিটেন্স-জিডিপি’র অনুপাত সাম্প্রতিক বছরে ৫ শতাংশের কাছাকাছি নেমে এসেছে। যা ২০১৩ সালে ছিল ১০ শতাংশের কাছাকাছি।

এডিবি তাদের এশিয়ান উন্নয়ন পর্যালোচনায় (এডিও-২০১৮) বলে, রপ্তানি ও রেমিটেন্স দ্রুত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির মাধ্যমে বাংলাদেশকে ঐতিহ্যগতভাবে ভালো সেবা দিয়ে এসেছে। কিন্তু সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধিতে এগুলোর অবদান কমে এসেছে।

ব্যাংকটি জানায়, বাংলাদেশের কয়েকটি শিল্পে ভালো সম্ভাবনা রয়েছে। এগুলো হচ্ছে, চামড়া ও জুতা, লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রনিকস, ওষুধ, আসবাবপত্র, জাহাজ নির্মাণ, পাট পণ্য, খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ, অটোমোবাইলস ও রাবার পণ্য।

এডিবি আরো জানায়, এই সব শিল্প দেশের বিপুল সস্তা শ্রম ও সুবিধাজনক স্থানকে কাজে লাগিয়ে বিশ্বের ভ্যালু চেইনের বিভিন্ন ধাপে অংশগ্রহণ করবে এবং বিশ্বের নতুন বাজারগুলোতে প্রবেশ করবে।

এডিবি’র পর্যালোচনায় বলা হয়, সফটওয়্যার এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির পণ্যগুলো রপ্তানি করেও বাংলাদেশ দ্রুত সফলতার অভিজ্ঞতা অর্জন করছে। বাংলাদেশ এই খাতেও ভালো করবে বলে আশা করা যায়।