আন্তর্জাতিক

হংকংয়ে মিছিল সমাবেশ অব্যাহত, জনবিক্ষোভ তুঙ্গে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : হংকংয়ে রবিবার ব্যাপক বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। সরকারের পক্ষ থেকে প্রত্যর্পণ বিল স্থগিতের ঘোষণা আসলেও বিক্ষোভকারী ও পুলিশের মধ্যে নজিরবিহীন সংঘর্ষের কারণে জনবিক্ষোভ তীব্র রূপ ধারণ করে।

হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ও বেইজিংপন্থী নেতা ক্যারি ল্যাম লাখ লাখ লোকের ব্যাপক বিক্ষোভ এবং সমালোচনার মুখে শনিবার বিতর্কিত প্রত্যর্পণ বিল স্থগিতের ঘোষণা দেন। কিন্তু বিক্ষোভকারীরা এতে সন্তুষ্ট না হয়ে প্রত্যর্পণ বিল সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম সম্পূর্ণ বাতিল এবং তার পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ অব্যাহত রেখেছে।
সপ্তাহব্যাপী এই বিক্ষোভকালে সংঘর্ষে প্রায় ৮০ জন আহত হয়েছে। এদের মধ্যে ২২ পুলিশ কর্মকর্তাও রয়েছে। এছাড়া শনিবার ভবন থেকে পড়ে একজন বিক্ষোভকারী মারা গেছে।

সমালোচকেরা বলছেন, এই প্রত্যর্পণ বিলের কারণ চীন হংকংয়ের আভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের সুযোগ পাবে। হংকংবাসীর এ আশংকার কারণে বিলটির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ায়। সর্বস্তরের লাখ লাখ লোক রাস্তায় নেমে আসে। বলা হচ্ছে ১৯৯৭ সালে চীনের কাছে হংকংয়ের হস্তান্তরের পর থেকে এটি সবচেয়ে ভয়াবহ বিক্ষোভ।

এদিকে বিলটি নিয়ে চীনা সরকার বলছে, এটি বাতিল করা হবে একটি ভালো সিদ্ধান্ত। কারণ যত দ্রুত সম্ভব জনমতকে গুরুত্ব দিয়ে শান্তি পুনরুদ্ধারই গুরুত্বপূর্ণ।

এর আগে আই ক্যাবল নিউজকে বেইজিংপন্থী কট্টর আইনপ্রণেতা অ্যান চিয়াং বলেন, ‘আমাদের কি উচিত না জনগণকে শান্ত করা? আমি মনে করি বিলটি স্থগিত করা খারাপ কিছু না।’

উল্লেখ্য, এই বিলের কারণে চীন তার দেশের সন্দেহভাজন অপরাধীকে হংকং থেকে ফিরিয়ে নিয়ে বিচার করার সুযোগ পাবে।

সূত্র : বাসস

জুমবাংলানিউজ/এএসএমওআই