বিনোদন

স্বর্ণাকে বিয়ে করলেন রাকিব মোসাব্বির

এ প্রজন্মের সংগীত পরিচালক ও কন্ঠশিল্পী রাকিব মোসাব্বির প্রথমবারের মতো বিয়ের পিড়িতে বসলেন।

 

জন্মসূত্রে কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব শহরের জগন্নাথপুর-লক্ষ্মীপুর এলাকার সন্তান রাকিব মোসাব্বির। তিনি ভৈরবের চন্ডিবের এলাকার মেয়ে মারিয়া ইয়াসমিন স্বর্ণাকে ভালোবেসে পারিবারিকভাবেই বিয়ে করেছেন বলে তার ঘনিষ্টসূত্র জানায়।

 

গত ৯ ডিসেম্বর রাতে ভৈরবে দুই পরিবারের লোকজনের উপস্থিতিতে রাকিব বিয়ের কাজটি সেরেছেন বলে জানান রাকিব নিজেই। রাকিব মোসাব্বির বলেন, এক বছর ধরেই আমার পরিবার আমাকে বিয়ে করানোর জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিল। কিন্তু হুট করেই আমার বিয়েটা হয়ে গেল। মূলত পারিবারিকভাবেই পাত্রী দেখতে গিয়ে পছন্দ হওয়ায় একই দিনে আংটি পড়ানো হয় এবং বিয়ের কাজটি সেরে ফেলা হয়।

 

রাকিব সবার কাছে তাদের নতুন জীবনের জন্য দোয়া চান, যেন তারা সুখে-শান্তিতে সারাটি জীবন এক সাথে কাটিয়ে দিতে পারেন। তার ঘনিষ্টসূত্রে জানা যায়-খুব শিগগিরই একটি বড় অনুষ্ঠানের মাধ্যমে রাকিব মোসাব্বিরের বিবাহোত্তর সংবর্ধনার আয়োজন করা হবে।

 

বর্তমানে রাকিব-স্বর্ণা দম্পতি ভৈরবেই অবস্থান করছেন বলে জানা গেছে।

 

আলোচিত সংগীত পরিচালক রাকিব মোসাব্বির একাধারে একজন শিল্পী, সুরকার, গীতিকার, সংগীত পরিচালক, সাউন্ড ইঞ্জিনিয়ার, মিউজিশিয়ান, ভিজ্যুয়াল কালার ডিজাইনার, কলামিস্ট, লেখক, প্রযোজক ও নির্মাতা।

 

স্বল্পবয়সী এই সংগীতজ্ঞ বাংলাদেশ মিডিয়াতে সফলতা ও সুনামের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন প্রায় ৯ বছর ধরে। তার সংগীত পরিচালনায় প্রায় দু্ইশর ওপর গান বাংলাদেশ সংগীত বাজারে মুক্তি পেয়েছে। তিনি অসংখ্য শ্রোতাপ্রিয় গানের সুরস্রষ্টা। এছাড়া তার বেশ কিছু গানের মিউজিক ভিডিওর নির্মাতাও তিনি নিজেই। পাশাপাশি তিনি নতুন অডিও প্রযোজনা সংস্থা ‘টোন ফেয়ার’ ও ভিজুয়াল প্রডাকশন ‘আরএম এন্টারটেইনমেন্ট’ এর ফাউন্ডার ও সিইও।

 

তার প্রথম অ্যালবাম ‘যারে আমার মন’ মুক্তি পায় ২০০৮ সালে সাউন্ডটেক এর ব্যানারে এবং তার সর্বশেষ অ্যালবাম ‘মায়াবতী মন’ মুক্তি পায় লেজার ভিশনের ব্যানারে চলতি বছরেই। এছাড়া রাকিব ইতিমধ্যে বাংলাদেশের গন্ডি পেরিয়ে কলকাতার সাথেও যৌথ প্রযোজনায় বেশ কিছু সংগীত প্রজেক্ট এর কাজ করেছেন। আগামী বছরে ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে তার নতুন একটি একক অ্যালবাম প্রকাশিত হওয়ার কথা রয়েছে।

ভিডিওঃ ইরানী এই মেয়ের অবাক করা কান্ড দেখুন, আপনার ভাল লাগবেই

Add Comment

Click here to post a comment