শিক্ষা শিল্প ও সাহিত্য

সোমরস সৌরভ আর স্ক্যান্ডাল

আর্যদের পানীয় ও ভোজ্য দ্রব্যের সংখ্যা কত ছিল, তা পুরোপুরি জানার সুযোগ হয়তো নেই। কারণ কালের বিবর্তনে অনেক খাবার ও পানীয় হারিয়ে যায়। ঋগ্বেদে দধি, দুগ্ধ, ক্ষীর, যব, পক্তি (এক ধরনের পিঠা), পুরোডাস, অপূপা ও করম্বের নাম রয়েছে। তবে সোমরসের নাম এসেছে সবচেয়ে বেশি বার। এর একটা কারণ এটা হতে পারে, সোম শুধু একটি পানীয়ই নয়। সোম আর্যদের অন্যতম প্রধান দেবতা। সূক্ত সংখ্যার দিক দিয়ে ও জনপ্রিয়তার মানদণ্ডে ইন্দ্র ও অগ্নির পরেই রয়েছেন সোম।

ঋগ্বেদে ইন্দ্রের উদ্দেশ্য ২৫০টি, অগ্নির উদ্দেশ্যে ২০০টি এবং সোমের উদ্দেশ্যে ১১৪টি সূক্ত রচিত হয়েছে।

অভিধানে সোমরসের অর্থে বলা হয়েছে ‘সোম লতা হতে তৈরি মদ (বলবান্ ইন্দ্রদেব সোমরস পান করিতে ইচ্ছা করিয়াছিলেন এবং উপর্য্যুপরি যজ্ঞত্রয়ে সোমরস পান করিয়াছিলেন- দেবতত্ত্ব ও হিন্দুধর্ম্ম, বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়; ‘সোম’ নামক প্রবন্ধে বৈদিক সোমরস যে সুরা অর্থেই ব্যবহৃত হইত না লেখক তাহাই প্রমাণ করিতে প্রস্তুত হইয়াছেন- সাময়িক সাহিত্য সমালোচনা, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর)

দেহ ও মনের উপর সোমরসের প্রতিক্রিয়ার কথা ঋগ্বেদে আছে।

‘সোম ঘোটকের ন্যায় দ্রুতগামী’, ‘সে আপন তেজ বিকীর্ণ করে’, ‘যে মাদকরস বর্ষণ করে’, ‘সোম স্তবের যোগ্য’, ‘সোমপায়ী ব্যক্তি লুণ্ঠনকার্যে পটু’, ‘সোম অন্ন, গাভী ও উত্তম গৃহ উপার্জন করিয়ে দেয়’ ‘কবিরা তাকে স্তব করে’ [রমেশচন্দ্র দত্তের অনুবাদ]

এদিকে সংস্কৃত ক্লীবলিঙ্গে সৌরভ (সুরভি + অ) অর্থ সুগন্ধ, সুরভিভাব (স্বর্গীয় সৌরভে পূর্ণ- মেঘনাদবধ কাব্য; বাতাসে সৌরভ ভাসে, আঁধারে কত না তারা, আকাশে অসীম নীরবতা, তখন প্রাণের মাঝে কত কথা ভেসে যায়, সে কি তোরি কথা?- প্রতিধ্বনি, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর), ধন্যাক, কুঙ্কুম।

কিন্তু বাংলায় সৌরভ মানে গুণবত্তা (সৌরভে গৌরবে, কে তোমার তুলনা হবে- বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়; সৌরভে আগোরি রাই সুনাগরী- গোবিন্দদাস পদাবলী; ঠাকুরের মুখে যেন তাই হাসি, মন্দিরে যেন তাই শতগুণ সৌরভ- মন্দির, শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়; পুষ্পের সৌরভ, সুরভি বারির সৌরভ, সুগন্ধ দীপের সৌরভ, গন্ধদ্রব্যমার্জিত বিলাসিনীগণের অঙ্গের সৌরভ, পুরীমধ্যে সর্বত্র সৌরভে ব্যাপ্ত- দুর্গেশনন্দিনী, বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়)।

আর বাংলায় স্ক্যান্ডাল শব্দটি সরাসরি ইংরেজি থেকে এসেছে। শব্দটি নেতিবাচক এবং এটি দিয়ে বাংলায় কেলেঙ্কারি, কলঙ্ককর কিছু, পরচর্চা, অপবাদ, কলঙ্ক, অপযশ বোঝায় (‘দেশ’ এখন স্ক্যান্ডাল, গুজব আর পুরুষবাজির পত্রিকা- তসলিমা নাসরিন)।

অবশ্য ইংরেজিতে শব্দটি যতোটা গভীরতা ও ব্যাপ্তি ধারণ, বাংলায় ঠিক ততোটা ধারণ করতে পারছে না। তেরশ শতকে শব্দটি ইংরেজিতে ঠাঁই নেয়। লাতিন শব্দ scandalum থেকে শব্দটি ইংরেজিতে ঢোকে। scandalum মানে প্রতিবন্ধক বা বাধা। অবশ্য লাতিন scandalum শব্দটির মূলে রয়েছে গ্রিক skandalon শব্দটি, যার অর্থ ফাঁদ।

ইংরেজিতে স্ক্যান্ডাল শব্দের প্রতিশব্দ হচ্ছে outrageous wrongdoing, outrageous behaviour, immoral behaviour, unethical behaviour, discreditable behaviour, shocking incident/series of events, impropriety, misconduct, wrongdoing; offence, transgression, crime, sin; shame, dishonour, disgrace, disrepute, discredit, infamy, ignominy, embarrassment; odium, opprobrium, censure, obloquy; stigma, malicious gossip, malicious rumour(s), slander, libel, scandalmongering, calumny, defamation, aspersions, muckraking, smear campaign.

লেখাটি লেখকের ব্লগ থেকে নেয়া



সর্বশেষ খবর