খেলাধুলা ফুটবল

ষষ্ঠবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শিরোপা ঘরে তুললো লিভারপুল

স্পোর্টস ডেস্ক: টটেনহ্যাম হটস্পারকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শিরোপা জয় করেছে লিভারপুল। সেই সঙ্গে গত মৌসুমের ফাইনালে রেয়াল মাদ্রিদের কাছে পরাজয়ের দুঃখও তারা ভুলিয়ে দিয়েছে। খবর বিবিসি বাংলার।

মাদ্রিদে শনিবার ফাইনালে ২-০ গোলে জিতেছে লিভারপুল। এই জয়ের পেছনে বড় ভূমিকা রেখেছেন মোহাম্মদ সালাহ, যিনি খেলার দ্বিতীয় মিনিটেই পেনাল্টি গোল দিয়ে লিভারপুলকে এগিয়ে দেন। আর খেলার শেষের দিকে দিভোক ওরিগির গোলে জয় নিশ্চিত করে লিভারপুল।

এর মাধ্যমে ষষ্ঠবারের মতো এই ইউরোপীয় প্রতিযোগিতার শিরোপা জয় করলো ক্লাবটি।

খেলার শুরুতেই প্রথম আক্রমণে টটেনহ্যামের ডি-বক্সে ঢুকে সাদিও মানের শটে মিডফিল্ডার মুসা সিসোকোর বুকে লেগে হাতে বল লাগে।

ফলে পেনাল্টি কিক পায় লিভারপুল। সেই স্পট কিকে জালে বল ছুঁড়ে দিয়ে লিভারপুলকে এগিয়ে দেন সালাহ। এটি ছিল চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ফাইনালে দ্বিতীয় দ্রুততম গোল।

এরপর বেশ কয়েকবার আক্রমণ পাল্টা-আক্রমণ চললেও টটেনহ্যামের পরাজয় নিশ্চিত করে দেন বদলি খেলোয়াড় হিসাবে নামা দিভোক ওরিগি। খেলা শেষ হতে তিন মিনিট বাকি থাকতে জোয়েল মাতিপের কাছ থেকে পাওয়া বল প্রতিপক্ষের জালে জড়িয়ে দেন ওরিগি।

আর এই গোলের মাধ্যমেই লিভারপুলের শিরোপা নিশ্চিত করে দিলেন ওরিগি। জয়ের পেছনে জোরালো ভূমিকা রেখেছেন লিভারপুলের গোলরক্ষক আলিসনও।

হিউং মিন এবং ক্রিস্টিয়ান এরিকসেনের জোরালো দুটি শট দারুণ দক্ষতায় ঠেকিয়ে দিয়েছেন তিনি।

প্রায় এগারো বছর পর এবার চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ‘অল ইংলিশ’ ফাইনাল খেলা হলো। সর্বশেষ ২০০৭-২০০৮ মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ফাইনালে খেলেছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও চেলসি।

গত মৌসুমে ইউক্রেনে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হেরে শিরোপা হাতছাড়া হয়েছিল লিভারপুলের। এখন চ্যাম্পিয়ন্স লীগের সর্বোচ্চ শিরোপাধারীর তালিকায় এই ক্লাবের সামনে আছে শুধুমাত্র রিয়াল মাদ্রিদ এবং এসি মিলান।

আর প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লীগ বা ইউরোপীয় লীগের ফাইনালে খেলেছে টটেনহ্যাম হটস্পার।

লিভারপুলের এই শিরোপার দৌড়ে তারা কোয়ার্টার ফাইনালে হারিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখকে আর সেমি-ফাইনালে ৪-০ গোলে হারিয়েছে বার্সেলোনাকে।

সুতরাং লিভারপুল ম্যানেজার ইয়ুর্গেন ক্লপের জন্য শুধু এটি একটি শিরোপাই নয়, তার নাম উঠে যাবে ক্লাব ফুটবলের লোকগাথাতেও।

জুমবাংলানিউজ/এইচএম