গাজীপুর ঢাকা বিভাগীয় সংবাদ

শ্রীপুরে বিএনপি নেতাকে কুপিয়ে জখম

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর: গাজীপুরের শ্রীপুরে এলাকায় প্রকাশ্য এলোপাতাড়ি কুপিয়ে বিএনপি নেতা কাজল মিয়ার (৩৮) হাতের কব্জি বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার বরামা ঈদগা মাঠ এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতালে (পঙ্গু হাসপাতাল) ভর্তি করা হয়। আহত কাজল মিয়া বরমী ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি।

কাজলের ভাগিনা আরিফ হোসেন জানান, ‘শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে চা পানের জন্য পাশের আবদুল আউয়াল ক্বারীর চায়ের দোকানে যান কাজল। দুপুর প্রায় পৌনে ১২টার দিকে ১০/১১ জনের একদল যুবক চা পানরত কাজলের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।’

কাজলের স্ত্রী বিলকিস আক্তার দাবি করেন, ‘আশপাশের লোকজন কিছু বুঝে ওঠার আগেই এলোপাতাড়ি কুপিয়ে যুবকরা পালিয়ে যান।’

কাজলের ভাগনে আরিফ হোসেন আরও জানান, ‘এলোপাতাড়ি কোপে মামার বাঁ হাতের কব্জি বিচ্ছিন্ন ও ডান পায়ের রগ কেটে গেছে। বরামা পূর্ব পাড়া গ্রামের কুদরত আলীর ছেলে তোতা মিয়া, মৃত সাবেদ আলীর ছেলে আবদুল মান্নান, আশ্রফ আলী আকন্দের ছেলে ফেরদৌস ও নূরু মিয়ার ছেলে জসীমের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা তার ওপর হামলা চালায়।’

প্রতিবেশীরা জানান, গত বুধবার কাজল মিয়া নিজ বাড়ির সামনে ফেরদৌসকে বেদম মারধর করেছিলেন। ওই ঘটনার জেরে হামলার ঘটনাটি ঘটে থাকতে পারে।

বরমী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আফাজ প্রধান বলেন, ‘এটা রাজনৈতিক সহিংসতার কোনও ঘটনা নয়। কাজল বিএনপি নেতা। তবে তার কর্মকাণ্ডে গ্রামের মানুষজন অতিষ্ঠ ছিল।’

শ্রীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজ্জামান বলেন, ‘হামলার ঘটনায় তদন্ত করে মামলা নেওয়া হবে।’

Add Comment

Click here to post a comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.