আন্তর্জাতিক

লাদেনের ছেলেকে মিসরে ঢুকতে দেয়া হলো না

আল কায়েদাপ্রধান ওসামা বিন লাদেনের ছেলে ওমর বিন লাদেনকে মিসরে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। শনিবার স্ত্রী জেইনা আল সাবাকে নিয়ে দোহা থেকে মিসর যেতে চাইছিলেন। কিন্তু বিমানবন্দরে আটকে দেয়া হয় ৩৪ বছর বয়সী ওমরকে।
পাসপোর্ট দেখে নিরাপত্তারক্ষীরা তাকে আটক করেন। বলা হয়, তার নাম দেশে প্রবেশে নিষিদ্ধ ব্যক্তিদের তালিকায় রয়েছে। তাই বিমানবন্দর থেকে বেরোতে পারবেন না। কারণ জানতে চাইলে উপযুক্ত জবাব পাননি। উল্টে এক ‌রকম জোর করেই তাদের তুরস্ক পাঠিয়ে দেয়া হয়। এর আগেও একবার মিসরে হেনস্থা হতে হয়েছিল তাদের। ২০০৭ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত বেশ কয়েক মাস মিসরে কাটানোর পর ফের সেখানে ফিরতে চাইলে অনুমতি মেলেনি। শুধু মিসরেই নয়, ব্রিটেনে প্রবেশের অনুমতিও পাননি ওমর।
ব্রিটিশ নাগরিক স্ত্রী জেইনার সঙ্গে সেখানে থাকতে চাইলে, তার আবেদন খারিজ করে দেয়া হয়। বলা হয়, তাকে থাকতে দিলে সাধারণ মানুষ বিক্ষোভ দেখাতে পারেন। তবে ইউরোপীয় ইউনিয়নের বাকি দেশগুলিতে অনুমতির প্রবেশের অনুমতি পেয়েছিলেন তিনি।
বারবার হেনস্থার শিকার হয়ে, কয়েক বছর আগে নিজে থেকেই এগিয়ে আসেন ওমর। সংবাদমাধ্যমকে জানান, ‘‌লাদেনের ছেলে মানেই কি সন্ত্রাসবাদী?‌ পশ্চিমি এদেশগুলিকে পুরনো ধ্যান ধারণা ত্যাগ করতে হবে। ১৯৯৬ সাল থেকে কিছু বছর আফগানিস্তানে কাটিয়েছিলাম বটে। কিন্তু ২০০০ সালের পর বাবার সঙ্গে কোনো সম্পর্ক ছিল না। ভাই–বোনদের কেউ–ই আল কায়দার সঙ্গে যুক্ত নয়। তা সত্ত্বেও বাবার সন্তান হওয়ার মাসুল গুনতে হচ্ছে।’‌
উল্লেখ্য, ২০১১ সালে পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদে মার্কিন সেনার হাতে মৃত্যু হয় ৯‌/‌১১ হামলার ওসামা বিন লাদেনের।

ভিডিও:বিমান থেকে যাত্রীকে টেনে নামালেন নিরাপত্তারক্ষীরা ! যা দেখে অবাক হবেন (‌ভিডিও)‌

Add Comment

Click here to post a comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.