slider আন্তর্জাতিক

রোহিঙ্গা ইস্যুতে সুচিকে ধুয়ে দিলো জাতিসংঘ

অং সান সুচির নেতৃত্বাধীন মিয়ানমার সরকার রোহিঙ্গা মুসলিমদের সঙ্গে যে আচরণ করছে তার তীব্র নিন্দা কেরছে জাতিসংঘ। রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে মিয়ানমার সরকারের উদাসীন ভাব বড় ধরনের ক্ষতির কারণ হতে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন সংস্থাটির মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার জেইদ রা’দ আল হুসেন।

দেশটির ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালী নেত্রী নোবেলজয়ী অং সান সুচিকে বিরোধপূর্ণ উত্তরাঞ্চল পরিদর্শনের আহ্বান জানানোর সপ্তাহখানেক পর এ শঙ্কা প্রকাশ করলেন হাইকমিশনার।

এক বিবৃতিতে জেইদ রা’দ আল হুসেন বলেন, ‘মিয়ানমার সরকার যদি সেখানকার পরিস্থিতিকে হালকা, নিষ্ফল বা গাছাড়া’ ভাব নিয়ে দেখে তাহলে তা ওই অঞ্চলে দীর্ঘমেয়াদে বড় ধরনের ক্ষতি ডেকে আনতে পারে।

মিয়ানমারের সরকার জাতিসংঘের পর্যবেক্ষকদেরকেও রাখাইন রাজ্যে ঢুকতে দিচ্ছে না। সেখানকার পরিস্থিতির কোনো স্পষ্ট চিত্র জাতিসংঘের কাছে নেই। এ অবস্থায় রাখাইন রাজ্যের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদের ব্যাপারে সবচেয়ে খারাপ আশঙ্কাই করছে জাতিসংঘ।

জাতিসংঘের মানবাধিকার প্রধান আরো বলেছেন, ‘যেভাবে মিয়ানমারের সরকার গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগকে বানোয়াট বলে উড়িয়ে দিচ্ছে এবং সেখানে স্বাধীন পর্যবেক্ষকদের প্রবেশ করতে দিচ্ছে না, তা ঘটনার শিকার রোহিঙ্গাদের জন্য খুবই অবমাননাকর। আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনানুযায়ী মিয়ানমারের সরকারের যে বাধ্যবাধকতা রয়েছে, এর মাধ্যমে সেগুলো তারা এড়িয়ে যাচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের যদি লুকোনোর কিছু না থাকে, তাহলে কেন তারা সেখানে আমাদের ঢুকতে দিচ্ছে না? যেভাবে তারা আমাদের সেখানে ঢুকতে অনুমতি দিতে বার বার ব্যর্থ হচ্ছে, তাতে করে আমরা রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে সবচেয়ে খারাপটাই আশঙ্কা করছি।’

এদিকে বিজিবির চোখ ফাঁকি দিয়ে বাংলাদেশে ঢুকে পড়ার পর শরণার্থী ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছে অনেক রোহিঙ্গা। বিরোধপূর্ণ উত্তর রাখাইনে শান্তি ফেরাতে দেশটির সরকারকে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মধ্যে জমে থাকা দীর্ঘদিনের ক্ষোভ নিরসনে ব্যবস্থা নিতেও অনুরোধ জানান তিনি।

ভিডিওঃ দুই দিনে মিমের গানের দর্শক সংখ্যা প্রায় চার লাখ! (ভিডিও)

Add Comment

Click here to post a comment