বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

রোবট সোফিয়া চমকের গোপন কৌশল ফাঁস!

সৌদি আরবে গত অক্টোবর মাসে অনুষ্ঠানে রোবটটি প্রদর্শন করা হয়েছিল। প্রদর্শনীতে উপস্থিত শতশত প্রতিনিধি রোবটটি দেখে এতটাই মুগ্ধ হন যে সেদিনই এটিকে সৌদি নাগরিকত্ব দেয়া হয়। এরপর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে সোফিয়ার ছবি শেয়ার হতে থাকে।

সোফিয়া নানা বিষয়ে অসংখ্য প্রশ্নের উত্তর দিতে পারে। ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের মাধ্যমে বিশাল তথ্যভাণ্ডারে যুক্ত থাকে সে। এছাড়া মানুষের সঙ্গী ও সহযোগী হিসেবেও কাজ করতে পারে সোফিয়া।

তথ্যপ্রযুক্তির বৃহৎ মেলা ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে অংশ নিতে এখন বাংলাদেশে আনা হয়েছে প্রযুক্তির বিস্ময়কর আবিষ্কার রোবট সোফিয়াকে। সোফিয়া বর্তমান ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের বিস্ময়।

সোফিয়াকে নিয়ে আয়োজন করা অনুষ্ঠানের শুরুতে কথা বলেন ড. ডেভিড হ্যানসন। তার কাছে জানতে চাওয়া হয় পূর্ণাঙ্গ রোবট বানানো সম্ভব কি-না? জবাবে হ্যানসন বলেন, হ্যা, সম্ভব। এ সময় সামাজিক রোবটের নির্মাতা বলেন, সোফিয়ার সফ্টওয়্যারটি ওপেন সোর্স আকারে রয়েছে। বাংলাদেশের কেউ চাইলে এ সফ্টওয়্যার ডেভেলপ করতে পারবে। আমার পক্ষ থেকে তাকে স্বাগত।

অনুষ্ঠানস্থলে তরুণ-তরুণীদের উপচেপড়া ভিড় ছিল। তবে কারও মধ্যে কোনো ক্লান্তি ছিল না। সোফিয়াকে সামনে থেকে এক নজর দেখার জন্য অডিটোরিয়ামজুড়ে ছিল মানুষের ভিড়।’

সঞ্চালক প্রশ্ন করেন, সোফিয়া আপনি যে পোশাকটি পরেছেন তাতে আপনাকে মানিয়েছে বেশ। আপনি কী জানেন, আপনি কী পোশাক পরে আছেন? খানিকটা হেসে সোফিয়া বলে, আমি বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী জামদানি পোশাক পরেছি।

এরপর আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক সোফিয়ার কাছে জানতে চান, একটি জাতিকে বদলানোর জন্য ডিজিটালাইজেশনের ভূমিকা কী হতে পারে? সোফিয়া বলে, জাতিকে বদলাতে হলে ডিজিটালাইজেশনের বিকল্প নাই।

বুধবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড মেলা উপলক্ষে প্রথম সামাজিক রোবট সোফিয়াকে নিয়ে ‘টেক টক উইথ সোফিয়া’ নিয়ে আয়োজন করা অনুষ্ঠানে হাসিমুখে বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেয় সোফিয়া।

তবে, যারা সোফিয়ার সামনের কথা শুনে আকুল ব্যাকুল ও মুগ্ধ হয়ে গিয়েছিলেন তারা সোফিয়ার পেছনের অংশটি দেখুন। পেছনে তার লাগানো আছে। যা শিখিয়ে দেওয়া হয় তাই বলতে পারে। এমনকি দুর থেকে রোবটের কথা নিয়ন্ত্রন করা যায়।



সর্বশেষ খবর