খেলাধুলা

রোনালদো ‘ধর্ষক’ কি-না জানতে ডিএনএ পরীক্ষার নির্দেশ

স্পোর্টস ডেস্ক : ‘ধর্ষণ’ অভিযোগে বেকায়দায় ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। মডেল ক্যাথরিন মায়োরগাকে তিনি আদৌ ধর্ষণ করেছিলেন কি-না, জানতে এবার তারকা ফুটবলারের ডিএনএ-র নমুনা সংগ্রহ করার নির্দেশ দিয়েছে লাস ভেগাস পুলিশ।

২০০৯ সালে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছিলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মডেল ক্যাথরিন। তারপরেই তদন্তে নামে পুলিশ। ডিপার্টমেন্টের পক্ষ থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়, মায়োরগার পোশাকে প্রাপ্ত ডিএনএ, রোনাল্ডোর দেহের কি-না, তা তদন্ত সাপেক্ষ মিলিয়ে দেখার জন্যই ডিএনএ টেস্ট প্রয়োজন।

রোনালদো যে মডেলের শয্যাসঙ্গিনী হয়ে থাকতে পারেন, তা কার্যত নিশ্চিত করে দিয়েছেন মহাতারকা ফুটবলারের আইনজীবী পিটার ক্রিশ্চিয়ানসেন। তবে এটাকে ‘ধর্ষণ’ বলে স্বীকার না করে তিনি মন্তব্য করেছেন, ‘মিস্টার ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো সব সময়ে বলেছেন, লাস ভেগাসের ঘটনা পারস্পরিক সম্মতির ভিত্তিতে হয়েছিল। তাই এটা আশ্চর্যের হবে না, যে ডিএনএ-র নমুনা মিলে যেতেই পারে।

৩৪ বছরের তরুণী মডেল জার্মানির বিখ্যাত ‘ডের স্প্রিগেল’ পত্রিকায় জানিয়েছিলেন, লাস ভেগাসের ‘রেইন’ নাইট ক্লাবে ২০০৯ সালে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর সঙ্গে সাক্ষাৎ হয়েছিল তার। তারপরে পাম প্লেস হোটেলে নিজের পেন্টহাউসে তাকে ‘ধর্ষণ’ করেন রোনালদো।

জুমবাংলানিউজ/এইচএমজেড