খেলা-ধুলা

যে ক্রিকেটারকে আউট করে ওয়াসিম আকরাম গর্বিত

সেই ক্রিকেটার এশিয়ার একটি দেশের। আরও ছোট করে বললে ভারতের।
ভারতীয় ক্রিকেটের কথা উঠলে সবার আগে যে নামটি চলে আসে তা হলো শচীন টেন্ডুলকার। তাকে আউট করতে পারলে বিশ্বের যে কোনো বোলার নিজেকে গর্বিত ভাবতেন। কিন্তু মাস্টার ব্লাস্টার ছাড়াও ভারতে আছেন আরও অনেক কিংবদন্তি ক্রিকেটার। তাদের একজনের উইকেট নিতে পেরে নিজেকে গর্বিত ভাবেন পাকিস্তানি পেস লিজেন্ড। সেই ক্রিকেটার কিন্তু শচীন নন!

তবে শচীনই তার দেখা সেরা ক্রিকেটার। কিন্তু সুনীল গাভাস্কার হলেন সেই ব্যাটসম্যান যাকে আউট করতে পেরে গর্ববোধ করেছিলেন ওয়াসিম আকরাম। একইসঙ্গে গাভাস্কারকে বল করা সবচেয়ে কঠিন মনে হত তার কাছে। আকরাম বলেছেন, ‘আমি অনেক সেরা ব্যাটসম্যানকে বল করেছি। কিন্তু আমার কাছে প্রাইজ উইকেট হল সুনীল গাভাস্কারের উইকেট।
সেরা একজন ওপেনার। কেউ যদি সঠিক ব্যাটিং টেকনিক শিখতে চান, তা হলে তাকে গাভাস্কারের খেলা দেখতে হবে। যে হেলমেট ছাড়া ব্যাট করত। তবু তাকে বল করা কঠিন ব্যাপার ছিল। ‘

তবে তার দেখা সেরা ক্রিকেটার যে শচীনই, সে কথা নির্দ্বিধায় কবুল করলেন রিভার্স সুইংয়ের আর্কিটেক্ট ওয়াসিম আকরাম। আকরাম বলেন, ‘কিংবদন্তি ক্রিকেটারের পাশাপাশি শচীন একজন অসাধারণ মানুষ। দীর্ঘ ক্রিকেট জীবনে তাকে নিয়ে কোনো বিতর্ক নেই। মাঠ কিংবা মাঠের বাইরে তার জীবনে ক্রিকেট ছাড়া আর কিছুই নেই। বিশ্বের সেরা ক্রিকেটার। ‘

কিশোর শচীনকে দেখেই নাকি আকরামে মনে হয়েছিল এই ছেলে একদিন বড় কিছু করবে। তার মত আরও অনেকেরই সেই ভবিষ্যদ্বাণী প্রমাণ করেছেন শচীন। উচ্ছ্বসিত আকরাম তাই বললেন ‘একজনের ক্রিকেটারের দখলে ১০০ আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরি! ভাবা যায়! বিশ্ব ক্রিকেট আবার কবে এমনটা দেখবে!’

শেষে ভারতের বর্তমানের তিন ফরম্যাটের অধিনায়ক বিরাট কোহালি সম্পর্কেও বলতে ভুললেন না আকরাম। বললেন, ‘বিরাট কোহালি এই যুগের সেরা। ৩২টি ওয়ানডে সেঞ্চুরি সে ইতিমধ্যেই করে ফেলেছে। যার প্রায় সবগুলিই দলের জয়ে ভূমিকা রেখেছে। এটাই একজন ক্রিকেটারের কৃতিত্ব। ‘