জাতীয় জাতীয় সংসদ নির্বাচন বিভাগীয় সংবাদ রংপুর

যে কার‌ণে বা‌তিল হ‌লো কু‌ড়িগ্রা‌মের ১৯ প্রার্থীর ম‌নোনয়ন

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচ‌নে কু‌ড়িগ্রা‌মের চার‌টি আসন থে‌কে মোট ৫৭ জন প্রার্থী সং‌শিষ্ট নির্বাচ‌নী এলাকার রিটা‌র্নিং কর্মকর্তা ও সহকারী রিটা‌র্নিং কর্মকর্তার কা‌ছে ম‌নোনয়ন ফরম জমা দেন। এর মধ্যে গত র‌বিবার ম‌নোনয়ন ফরম যাচাই বাছাই‌য়ের দি‌নে মনোনয়ন ফরম ও হলফ নামায় বি‌ভিন্ন অসঙ্গ‌তি এবং ত্রু‌টির কার‌ণে ১৯ জ‌নের ম‌নোনয়নপত্র বা‌তিল ক‌রেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক ‌মোছা.সুলতানা পারভীন।

কুড়িগ্রাম

কুড়িগ্রাম-১ আসন (ভুরুঙ্গামারী ও না‌গেশ্বরী উপ‌জেলা) থেকে মনোনয়নপত্র জমাদানকারী ১০ জনের মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা ওসমান গনির মনোনয়নপত্রটি বাতিল হয়। বা‌কি নয়টি ম‌নোনয়ন বৈধ ব‌লে ঘোষণা ক‌রেন জেলা রিটা‌র্নিং কর্মকর্তা।

কুড়িগ্রাম-২ আসনে (সদর,রাজারহাট ও ফুলবাড়ী উপ‌জেলা) মনোনয়নপত্র জমাদানকারী ১৫ জনের মধ্যে চার জনের মনোনয়ন ফরম বাতিল করা হয়। এরমধ্যে জাতীয় পা‌র্টি থে‌কে ম‌নোনয়ন চে‌য়ে ব্যর্থ হওয়া স্বতন্ত্র প্রার্থী চৌধুরী সফিকুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আবু সুফিয়ানের ম‌নোনয়ন বাতিল করা হয়। এছাড়া এ আস‌নে ম‌নোনয়ন প্রত্যাশী সমাধান ঐক্য পার্টির নিবন্ধন না থাকায় বাতিল হয়েছে বীরপ্রতীক আবদুল হাই সরকারের মনোনয়নপত্রটি। আর জাসদ প্রার্থী সলিমুলাহ ছলির সরকারি চাকরি থেকে অবসরে যাওয়ার তিন বছর পূর্ণ না হওয়ায় তারও ম‌নোনয়নপত্র‌টি বা‌তিল করা হয়।

কুড়িগ্রাম-৩ আসন (উ‌লিপুর উপ‌জেলা) থেকে ম‌নোনয়নপত্র ফরম জমাদানকারী নয় জন প্রার্থীর মধ্যে বিএনপি’র প্রার্থী কেন্দ্রীয় যুবদলের সা‌বেক সহ-সভাপতি আবদুল খালেক ঋণ খেলাপী হওয়ায় তার মনোনয়নপত্রটি বাতিল করা হয়।

অপর আট জ‌নের ম‌নোনয়ন ফরম বৈধ ব‌লে ঘোষণা ক‌রেন জেলা রিটা‌র্নিং কর্মকর্তা।

কুড়িগ্রাম-৪ আসনের (রৌমারী, রা‌জীবপুর ও চিলমারী উপ‌জেলা) দাখিলকৃত ২৩ জন প্রার্থীর মধ্যে ১৩ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ প্রার্থী জাকির হোসেনের মনোনয়নপত্রটি বাতিল হয় ম‌নোনয়ন ফরম ও হলফনামা যথাযথ ভা‌বে পূরণ না করায়। জাকের পার্টির প্রার্থী শাহ আলম তার হলফ নামায় স্বাক্ষর না করায় এবং গণফোরামের প্রার্থী মাহফুজার রহমান দলীয় মনোনয়ন দাখিল না করায় তার ম‌নোনয়ন ফরম বাতিল ব‌লে ঘোষণা করা হয়।

‌জেলা চার‌টি আস‌নের ম‌ধ্যে এই আসন থেকে সর্বোচ্চ ১১ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করলেও এরমধ্যে ১০ জন প্রার্থীর ম‌নোনয়ন ফর‌মে সং‌শিষ্ট নির্বাচ‌নি আস‌নের মোট ভোটের এক শতাংশ ভোটারের স্বাক্ষর যথাযথভাবে উ‌লেখ না থাকায় তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করেন রিটানিং কর্মকর্তা।

ম‌নোনয়ন বা‌তিল হওয়া স্বতন্ত্র ম‌নোনয়ন প্রত্যাশীরা হ‌লেন, গণ জাগরণ মঞ্চের মূখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ফজলুল হক মণ্ডল ও অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম, বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী ঈমান আলী ও শাসসুল হক মৌলভী, জাতীয় পার্টির (জাপা) বিদ্রোহী প্রার্থী অধ্যক্ষ ইউনুছ আলী, জামাতের আবুল হাসেম ও মোস্তাফিজুর রহমান, আবিদ আলভী জ্যাপ ও বাবুল খান।

জুমবাংলানিউজ/একেএ