slider বিনোদন

যৌন হয়রানির প্রতিবাদে মিছিলে উত্তাল হলিউড

যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন- এমন ব্যক্তিদের বিচার পাওয়ার সমর্থনে হলিউড থেকে মিছিল বের হলো রোববার। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘হ্যাশট্যাগ মি টু- এর প্রচারে উদ্বুদ্ধ হয়ে আয়োজিত মিছিলে শত শত লোক অংশ নেন।

সম্প্রতি অস্কারজয়ী প্রযোজক হার্ভে ওয়েনস্টেইনের বিরুদ্ধে মুখ খোলেন হলিউডের ডজন খানেক নায়িকা। তাদের মুখে হেনস্তার কথা শুনে সাহসী হয়ে ওঠেন আরো অনেকে। এরপর ‘মি টু’ হ্যাশট্যাগে দুনিয়াজুড়ে নারীরা তাদের যৌন হেনস্তার কথা জানানো শুরু করেন।

মিছিলটি শুরু হয় হলিউডের বুলেভার্ড থেকে এবং শেষ হয় সিএনএনের সদর দপ্তরের কাছে গিয়ে। যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন- এমন ব্যক্তিরা ছাড়াও আরো অনেকে মিছিলে অংশ নেন।

ছবি: The Associated Press

লস অ্যাঞ্জেলেসের ২১ বছর বয়সি টারা ম্যাকনামারা রয়টার্সকে বলেছেন, এ বিষয়ে দীর্ঘ সময়ের মধ্যে তেমন কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। তবে শেষ পর্যন্ত এর প্রয়োজনীয়তা অনুভূত হয়েছে। তিনি আরো বলেছেন, জীবনের বিভিন্ন সময় আমি যৌন হয়রানির শিকার হয়েছি, যা আমার জীবনের প্রতিটি দিককে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে।

হ্যাশট্যাগ ‘মি টু’ প্রথম ব্যবহার করেন সমাজকর্মী তারানা বুর্ক। তবে অভিনেত্রী আলিসা মিলানো প্রযোজক হার্ভে ওয়েনস্টেইনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করার পর এটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়।

ওই মিছিলে নেতৃত্ব দেন তারানা বুর্ক। তিনি বলেন, এটা প্রত্যেক হার্ভে উইনস্টাইনের বিরুদ্ধে। আমাদের আশেপাশে এমন শত শত লোক রয়েছেন, যারা এই ধরনের কাজ করে যাচ্ছেন।

গত কয়েক সপ্তাহের মধ্যে স্বনামধন্য ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির ভূরি ভূরি অভিযোগ ওঠে। এর মধ্যে রয়েছেন অভিনেতা কেভিন স্পেসি ও কমেডিয়ান লুইস সিক। গত শুক্রবার লুইস সিক অভিযোগ স্বীকার করে ক্ষমা চেয়েছেন।

এদিকে গত অক্টোবরে নিউ ইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ৬৫ বছর বয়সি ওয়েনস্টেইনের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানিসহ ধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে। তবে তার মুখপাত্রের মাধ্যমে এসব অভিযোগ তিনি অস্বীকার করেছেন।

তথ্যসূত্র : বিবিসি অনলাইন