বিনোদন

যার সঙ্গে নতুন প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়েছেন মিমি

ক্যারিয়ারের বেশ ভালো সময় পার করছেন কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী। মাঝখানে বেশ হতাশাপূর্ণ সময় যাচ্ছিল। রাজের সাথে সম্পর্ক চুকে যাওয়ার পর থেকেই হতাশায় নিমজ্জিত ছিলেন মিমি। এখন বেশ ফুরফুরে দেখা যাচ্ছে তাকে। অবশ্য এর কারণও খুঁজে বের করছেন ছিদ্রান্বেষীরা।

২০১৫ সালে বিয়ের খবর শোনা যায়। পাত্রও প্রস্তুত ছিলেন নির্মাতা রাজ চক্রবর্তী। দীর্ঘদিন ধরেই রাজ চক্রবর্তীর সঙ্গে মিমির প্রেমের গুজব ভাসে টালিগঞ্জের বাতাসে। ‘বাঙালি বাবু ইংলিশ মেম’ ছবির শুটিংয়ে রাজের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা শুরু হয় মিমির। এরপর ‘যোদ্ধা দ্য ওয়ারিয়র’ ছবির শুটিংয়ে প্রত্যক্ষদর্শীরা এমন সব কাহিনীর বর্ণনা করেছেন, যাতে প্রেমের খবরটা আর নিতান্ত গুজব থাকেনি।

মিমি বলেছিলেন, রাজের সঙ্গে আমার সম্পর্ক বিষয়ক জলঘোলা নিয়ে দুই বছর ধরে সব ইন্টারভিউ’তে কথা বলতে বলা হয়েছে। কিন্তু আমি চুপ। পৃথিবীর তিন ভাগ জল এক ভাগ স্থল, হোক না একটু জলঘোলা! আমি স্পষ্ট কথা বলতে পছন্দ করি। তবে এটা একান্ত ব্যক্তিগত বিষয়, তাই বেশি কিছু বলবো না। যেদিন আমি নিজে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেব, সকলকে নিশ্চয়ই জানাবো।

২০১২ সালে ‘বাপি বাড়ি যা’ ছবির মাধ্যমে রুপালি পর্দায় নাম লেখান স্টার জলসার জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘গানের ওপারে’র এ অভিনেত্রী। এরপর ‘বোঝে না সে বোঝে না’, ‘প্রলয়’, ‘বাঙালি বাবু ইংলিশ মেম’, ‘গল্প হলেও সত্যি’, ‘যোদ্ধা’ ছবিগুলোতে অনবদ্য অভিনয়ে নিজের অবস্থান পাকা করেন মিমি চক্রবর্তী।

সর্বশেষ আগস্টে তুরস্কে শুটিং করতে যাওয়ার পর রাজ-মিমির সম্পর্ক ভেঙে যায়৷ এই সম্পর্ক ভাঙায় মিমি যে খুব একটা স্বস্তিতে ছিলেন না, তা স্বীকার করেছেন প্রকাশ্যেই৷  এরপর নানাকাহিনী। এসব কাহিনি শেষে ফের নতুন খবর শোনা যাচ্ছে।

পশ্চিমবঙ্গে আগামী ১৯ জানুয়ারি যশ আর মিমি অভিনীত ‘ টোল দাদাগিরি’ ছবিটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে। মিমির সঙ্গে যশের এটি দ্বিতীয় ছবি। সব মিলিয়ে নতুন বছরে আরেকটি মিষ্টি প্রেমের বাংলা ছবি পেতে চলেছে টলিউড। কিন্তু এরই মধ্যে অন স্ক্রিনের বাইরে মিমি-যশের সম্পর্কে আলোচনা ভাসছে।

শোনা যাচ্ছে এই ছবি করতে গিয়ে তারা বন্ধুর চেয়ে বেশি কিছু হয়ে উঠছেন। এসবই ভেসে বেড়ানো কথা। যতক্ষণ পর্যন্ত ৩২ বছরের গ্ল্যামার কুইন এটা নিজ মুখে না বলছেন ততক্ষণ পর্যন্ত অপেক্ষা তো করতেই হবে।