আন্তর্জাতিক

মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট যে কারণে ব্যক্তিগত প্লেন বিক্রি করবেন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : দেশের জনগণের স্বার্থের কথা চিন্তা করে নিজের কেনা ব্যক্তিগত একটি উড়োজাহাজ বিক্রি করে দেয়ার ঘোষণা দিলেন মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাদর।

দেশটির অন্যতম প্রধান সমস্যা অবৈধ অভিবাসন নিয়ন্ত্রণে ব্যবহৃত হবে এই অর্থ।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে একটি চুক্তি করেছে মেক্সিকো। চুক্তি অনুযায়ী যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসন ঠেকাতে আরো বড় পরিসরে উদ্যোগ নেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে মেক্সিকো। চুক্তি হওয়ার কয়েক দিনের মাথায় প্লেন বিক্রির এ ঘোষণা দিলেন লোপেজ।

নির্বাচনী প্রচারণায় লোপেজ ঘোষণা দিয়েছিলেন, প্রেসিডেন্টকে বহনের জন্য ব্যবহৃত উড়োজাহাজ বিক্রি করে সে অর্থ দেশের গরিব মানুষের জন্য ব্যয় করা হবে।

বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনার’ উড়োজাহাজটির বাজারমূল্য ১৫ কোটি মার্কিন ডলার। ২০১৬ সালে বিমানটি ২২ কোটি মার্কিন ডলার দিয়ে কেনা হয়েছিল।

মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট নির্বাচনী প্রচারণার সময় সমর্থকদের বলেছিলেন, প্লেন বিক্রি করে তিনি বাণিজ্যিক বিমানে যাতায়াত করবেন। নির্বাচিত হওয়ার কিছুদিনের মধ্যেই নিজের প্রতিশ্রুতিকে বাস্তবে রূপ দিতে যাচ্ছেন অ্যামলো।

বিক্রির অপেক্ষায় থাকা প্রেসিডেন্টের জেটটি কয়েক মাস ধরেই ক্যালিফোর্নিয়ার একটি ওয়্যারহাউসে রাখা আছে। এই প্লেনটি ছাড়াও সরকারি মালিকানাধীন আরো ৬০টি বিমান ও ৭০টি হেলিকপ্টার বিক্রি করছে মেক্সিকো।

জুমবাংলানিউজ/এএসএমওআই