slider অন্যরকম খবর গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ফেসবুক লাইফ স্টাইল

মৃত্যুর পর আপনার সোশ্যাল অ্যাকাউন্টের কী হবে! জেনে রাখুন

জুমবাংলা ডেস্ক: সামাজিক গণমাধ্যম আমাদের জীবনে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ। এর মাধ্যমে অপরিচিত জনদের সঙ্গেও সামাজিক যোগাযোগ গড়ে তোলা, নতুন নতুন জিনিস আবিষ্কার, নতুন বন্ধু তৈরি এবং নিজের মতামত ও চিন্তা প্রকাশ সহ নানা সুযোগ তৈরি হয়েছে।

কোনও সন্দেহ নেই, ইউটিউব, টুইটার, লিঙ্কডিন, ইনস্টাগ্রাম সহ একাধিক গণমাধ্যম সাইটস থাকলেও, ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা সবথেকে বেশি। কেউ যখন নিজে ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি চালান তখন কোনও সমস্যা নেই। কিন্তু মৃত্যুর পর ফেসবুকীয় ডিজিটাল সত্ত্বার কী হয়?

১. ফেসবুক

আপনি চাইলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আপনার মৃত্যুর পর আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করে দেবে অথবা চালু রাখবে। আপনি যদি আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি আপনার মৃত্যুর পরও স্মৃতি হিসেবে চালু রাখতে চান তাহলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আপনার প্রোফাইল নামের পাশে ‘Remembering’ অর্থাৎ ‘স্মরণে’ এই শব্দটি দেখাবে। তবে আপনার মৃত্যুর পরে আপনার অ্যাকাউন্টটি কে চালাবে সে ব্যাপারে আপনাকে একটি আইনি চুক্তি বা উইল এর কপি ফেসবুককে পাঠাতে হবে। এতে ওই ব্যক্তির সঙ্গে আপনার সম্পর্ক এবং তার নাম জানাতে হবে। মৃত্যুর পর সংশাপত্র দেখিয়ে ওই ব্যক্তি আপনার অ্যাকাউন্টটি নিজে চালাতে পারে।

তবে কেউ যদি না আপনার মৃত্যুর খবর ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে কেউ না জানাচ্ছে ততদিন সক্রিয় থাকবে ততদিন অ্যাকাউন্টটি।

তবে ফেসবুক ছাড়া ভিন্ন ভিন্ন সোশাল মিডিয়ার প্রেক্ষিতে এই প্রশ্নের উত্তরটিও ভিন্ন হতে বাধ্য। কারণ ভিন্ন ভিন্ন সোশাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের ব্যক্তিগত গোপনীয়তার নীতিও ভিন্ন।

আসুন জেনে নেওয়া যাক ফেসবুক থেকে শুরু করে টুইটার, আপনার মৃত্যুর পর আপনার অ্যাকাউন্টটির কী হবে।

২. ইউটিউব
ইউটিউবও তাদের ব্যবহারকারীদের মৃত্যুর পর নিজেদের অ্যাকাউন্টের ভবিষ্যৎ নির্ধারণের সুযোগ দিয়ে রেখেছে। যারা ইউটিউবে চ্যানেল খুলে মিলিয়ন ডলার আয় করছেন তাদের জন্য এটা খুবই উপকারী হয়েছে। এ ক্ষেত্রে আপনাকে যা করতে হবে তা হলো আপনার মৃত্যুর পর আপনার ইউটিউব চ্যানেলটি কে চালাবে সে-সংক্রান্ত একটি আইনি দলিল পাঠাতে হবে ইউটিউব কর্তৃপক্ষের কাছে।

আপনি যদি তা না চান তাহলে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ নিজেরাই আপনার চ্যানেলটি বন্ধ করে দেবে। কোনও ইউটিউব চ্যানেলে একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত কোনো তৎপরতা না চালানো হলে সেটি এমনিই বন্ধ করে দেয় ইউটিউব কর্তৃপক্ষ।

৩. ইনস্টাগ্রাম
ইনস্টাগ্রামের নীতিওঅনেকটা ফেসবুকের মতোই। ইনস্টাগ্রামের অ্যাকাউন্টও মৃত্যুর পর চাইলে বন্ধ করে দেওয়া যায় বা স্মৃতি হিসেবে চালু রাখা যায়। তবে এই সিদ্ধান্ত ব্যবহারকারীর হাতে নেই। আপনার মৃত্যুর পর যে ব্যক্তি আপনার ডেথ সার্টিফিকেট ইনস্ট্রাগ্রামকে দেখাতে পারবে সে ব্যক্তিই আপনার অ্যাকাউন্টটির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিতে পারবে। তিনিই সিদ্ধান্ত নেবেন আপনার ইনস্ট্রাগ্রাম অ্যাকাউন্টটি চালু থাকবে না বন্ধ করে দেওয়া হবে।

৪. টুইটার
মৃত্যুর পর আপনার টুইটার অ্যাকাউন্টের কী হবে সে ব্যাপারে টুইটারের আলাদা কোনো নীতি নেই। তবে টুইটারের নীতি অনুযায়ী আপনার মৃত্যুর পর আপনার পরিবারের কেউ চাইলে আপনার অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করে দিতে পারবে। এ ক্ষেত্রে তিনি যে আপনার পরিবারের সদস্য সে প্রমাণ দিতে হবে। প্রমাণ দিতে পারলে তার অনুরোধে টুইটার আপনার পোস্ট, ছবি এবং অ্যাকাউন্ট অপসারণ করবে। আর এ জন্য অবশ্যই আপনার ডেথ সার্টিফিকেট বা মৃত্যুর প্রমাণপত্রও টুইটার কর্তৃপক্ষকে দেখাতে হবে।