ক্রিকেট (Cricket) খেলাধুলা

মুশফিকও বিদায়, চাপে বাংলাদেশ

[better-ads type='banner' banner='1187323' ]


স্পোর্টস ডেস্ক: রহিমকে (২৪) রানে হারিয়ে চাপে পড়েছে বাংলাদেশ।

৩১৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেম থিতু হয়েও ইনিংস বড় করতে পারলেন না তামিম ইকবাল। মোহাম্মদ শামির বলে বোল্ড হয়ে ফিরে গেলেন বাঁহাতি এই ওপেনার। ৭৪ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ৩৩ রান করে হার্দিক পান্ডিয়ার বলে বিরাট কোহলির তালুবন্দী হয়ে ফেরেন আরেক ওপেনার সৌম্য সকার।

একটু নিচু হয়ে যাওয়া বল ঠিক মতো খেলতে পারেননি তামিম। ব্যাটের নিচের দিকে লেগে আঘাত হানে স্টাম্পে। ভাঙে ৩৯ রানের উদ্বোধনী জুটি।

২৬ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ তিন উইকেটে ১৩২ রান।

‘কালোবাজারি’ থেকেও টিকেট সংগ্রহ করতে দ্বিধা করেনি দু’দেশের দর্শককূল। ৫০ পাউন্ডের টিকেট দুই শ’ পাউন্ড দিয়ে কিনে ২৫ হাজার ধারনক্ষমতা বিশিষ্ট এজবাস্টন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে একটি আসন পেয়ে মাশরাফি-কোহিলদের প্রতিদ্বন্দ্বীতা দেখতে চেয়েছিলেন স্বচক্ষে গ্যালারীতে বসে। বাংলাদেশী দর্শকরা লাল-সবুজে রাঙিয়ে তোলে গ্যালরীর একাংশ। আরেকদিকে গেরুয়া-সাদা আর সবুজে ভাসে ভারতীয় ক্রিকেট ভক্তরা। সেমিফাইনালের রেসে টিকে থাকতে হলে উত্তেজনা ঠাসা ম্যাচে বাংলাদেশকে পরাজিত করতে হবে ভারতকে। এমন ধ্যান নিয়েই মাঠে নামেন মাশরাফি বাহিনী।

টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ৩১৪ রান সংগ্রহ করে ভারত। আর তাতে বাংলাদেশের সামনে দাঁড়ায় ৩১৫ রানের বড় লক্ষ্য। ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সর্বোচ্চ (১০৪) রান করেন রোহিত শার্মা। (৭৭) রান আসে লোকেশ রাহুলের ব্যাট থেকে।

মঙ্গলবার বার্মিংহ্যামের এজবাস্টন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় হাইভোল্টেজ ম্যাচে মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ-ভারত। বিশ্বকাপের ৪০তম ম্যাচটিতে টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কেহলি।

ব্যাটিং সহায়ক পিচে অধিনায়কের প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত ভালো চয়েজ ছিলো বলে জানান দিলেন দুই ওপেনার রোহিত শার্মা ও রোকেশ রাহুল। ২৯.২ ওভারে বাংলাদেশী বোলারদের বেদম পিটিয়ে দুই ওপেনার ১৮০ রানের বড় জুটি গড়ে ভারতকে রানের পাহাড়ে বসানোর ইঙ্গিত দিয়েছেন শুরু থেকেই।

নিয়মিত বোলাররা যখন জুটি ভাঙতে ব্যর্থ হচ্ছে, তখন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা পার্ট টাইম মিডিয়াম পেসা বোলার সৌম্য সরকারকে বোলিং অ্যাটাকে নিয়ে আসেন। সৌম্য এসেই আস্থার প্রতিদান দিতে করেননি অধিনায়কের। ইনিংসের ৩০তম ওভার করতে এসে ওভারের দ্বিতীয় বলেই বিধ্বংসী রোহিত শার্মাকে তুলে নিয়ে ভারতীয় ওপেনিং জুটির ছেদন ঘটান সৌম্য এবং দলকে এনে দেন দারুণ এক ব্রেক থ্রো। আউট হওয়ার আগে বাংলাদেশী বোলারদের হেসেখেলে পিটিয়ে রোহিত শার্মা তুলে নেন ক্যারিয়ারের ২৬তম সেঞ্চুরি। ৯২ বলে ৭ চার ও ৫ ছক্কায় ১০৪ রানের ইনিংসে খেলেন রোহিত। ১৮০ রানে তার আউটের পর ১৯৫ রানের মাথায় লোকেশ রাহুলের উইকেটও হারায় ভারত। ৭৭ রানে ফিরিয়ে ভারতীয় শিবিরে দ্বিতীয় আঘাত হানেন পেসার রুবেল হোসেন। ওয়ানডাউনে নেমে বিরাট কোহলিকে (২৬) ও হার্দিক পান্ডিয়াকে পর পর তুলে নিয়ে জোড়া আঘাত হানেন মোস্তাফিজ। ওপেনাররা দুর্দাস্ত শুরু করলেও শেষদিকে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতা এবং বাংলাদেশী বোলারদের কামব্যাকে দ্রুত উইকেট হারাতে থাকে ভারত। চারে ব্যাট করা ঋষভ পান্তের ৪৮ ও মহেন্দ্র সিং ধোনির ৩৫ রানের সুবাধে ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ৩১৪ রান সংগ্রহ করে ভারত। আর তাতে বাংলাদেশের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩১৫ রান।

বাংলাদেশী বোলারদের মধ্যে মোস্তাফিজুর রহমান ৫টি, রুবেল হোসেন, সাকিব আল হাসান, সৌম্য সরকারি একটি করে উইকেট শিকার করেন।

জুমবাংলা/এসএম/