আন্তর্জাতিক স্লাইডার

মিয়ানমারের সংসদ ভবনে ড্রোন

মিয়ানমারের সংসদ ভবন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মিয়ানমারের পার্লামেন্ট ভবনের ওপর দিয়ে ড্রোন ওড়ানোর দায়ে একজন ফরাসি নাগরিককে গ্রেফতার করেছে সে দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি কেন ড্রোন ওড়াচ্ছিলেন তা স্পষ্ট নয়। আতর বিরুদ্ধে দেশটির মাদানি রফতানি সংক্রান্ত আইনের ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। বার্তা সংস্থা এএফপির কাছে মিয়ানমারে অবস্থিত ফরাসি দূতাবাস এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে।

মিয়ানমারের আইন অনুযায়ী সরকারি ভবনের ওপর ড্রোন ওড়ানো নিষিদ্ধ। ২০১৭ সালে একই একই ঘটনায় তিনজন সাংবাদিক ও তাদের গাড়ির চালককে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিল। সে সময় সিঙ্গাপুরের সাংবাদিক লাউ হন মেং ও মালয়েশিয়ার সাংবাদিক মোক চোয়ে লিন তুর্কি সংবাদমাধ্যম টিআরটির জন্য তথ্যচিত্র বানানোর উদ্দেশে মিয়ানমারের সংসদ ভবনের অপর ড্রোন উড়িয়েছিলেন।এ ঘটনায় তারা তো বটেই, তাদের প্রতিবেদক, মিয়ানমারের নাগরিক, অং আইং সোয়েকেও কারাদণ্ড দেওয়া হয়। রক্ষা পাননি তাদেরকে বহনকারী গাড়ির চালক পর্যন্ত। তাকেও কারাগারে যেতে হয়।

ফরাসি দূতাবাস কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করেছে বৃহস্পতিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) নেপিদোতে অবস্থিত মিয়ানমারের সংসদ ভবনের ওপরে ড্রোন ওড়াবার দায়ে তাদের দেশের এক নাগরিককে গ্রেফতার করা হয়েছে। ফরাসি দূতাবাসের পক্ষ থেকে তাকে আইনি সহযোগিতা দেওয়া হচ্ছে। আটক ব্যক্তির পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে এ বিষয়ে তথ্য জানানো হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত ২৭ বছর বয়সী ফরাসি ব্যক্তি একজন পর্যটক। যে ধারায় তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে তাতে তার তিন বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে। ২০১৭ সালের ঘটনায় অভিযুক্তরা ধারণা করেছিলেন, তাদেরকে আর্থিক জরিমানা করে হবে। কিন্তু মিয়ানমারের আদালত বিমান নিরাপত্তা আইনের ধারায় তাদের দুই মাসের কারাদণ্ড দেয়।

জুমবাংলানিউজ/এসওআর