আন্তর্জাতিক

মার্কিন মলুকে বাংলাদেশের যেসব পণ্যে ব্যবসা করছেন ট্রাম্প কন্যা

মার্কিন নির্বাচনের শুরু থেকেই আলোচিত যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়ে ইভাংকা ট্রাম্প। তবে শুধু মার্কিন প্রেসিডেন্টের মেয়ে হিসেবেই নয়; একজন নারী উদ্যোক্তা এবং ব্যবসায়ী হিসেবেও খ্যাতি আছে তার। পুরো যুক্তরাষ্ট্রজুড়েই বিক্রি হয় তার প্রতিষ্ঠানের পোশাক ও অন্যান্য ফ্যাশন পণ্য।

আর এসব পণ্য তৈরি করা হয় বাংলাদেশসহ এশিয়ার বিভিন্ন গার্মেন্টস কারখানায়। মূলত বিদেশি প্রস্তুতকারকদের ওপরই নির্ভরশীল ইভাংকার কোম্পানি।

মার্কিন গণমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, বাংলাদেশসহ ভিয়েতনাম, ইথিওপিয়া এবং ইন্দোনেশিয়া থেকে পোশাক তৈরি করে নেয়ায় সম্প্রতি সমালোচনায় পড়েছেন এই প্রেসিডেন্ট কন্যা। এর কারণ এসব দেশে নারী শ্রমিকদের দেয়া হয় নামমাত্র পারিশ্রমিক। গার্মেন্টস কারখানার কাজের পরিবেশ নিয়ে আছে আন্তর্জাতিক সমালোচনা।

এসব দেশ থেকে বানিয়ে নেয়া পণ্য যুক্তরাষ্ট্রে বিক্রি হয় রেকর্ড মূল্যে। শ্রমিকদের কম পারিশ্রমিক দেয়ার কথা জানার পরও ইভাংকা কেন এই দেশগুলোর গার্মেন্টেসে তার পণ্য তৈরির অর্ডার দেন- এ নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন।

ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদন মতে, বাংলাদেশি গার্মেন্টস শ্রমিকদের পারিশ্রমিক দেয়া হয় মাসে ৫৩ ডলার (৫ হাজার ৩০০ টাকা)। ইথিওয়পিয়াতেও একই অবস্থা। চীনের তুলনায় তিনভাগের একভাগ পারিশ্রমিক পান দেশটির শ্রমিকরা। অনুন্নত এই দেশগুলোতে গার্মেন্টস শ্রমিকদের জন্য নেই পর্যপ্ত নিরাপত্তা।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে হোয়াইট হাউসে ট্রাম্পের অবৈতনিক উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করছেন ইভাংকা। তার স্বামী জ্যারেড কুশনারও একজন আবাসন ব্যবসায়ী। ট্রাম্পের উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনিও।