বিভাগীয় সংবাদ সিলেট

মন্দিরে আটকিয়ে যুবককে মারধর, অভিযুক্ত পুলিশ প্রত্যাহার

ছবি- সংগৃহীত

জুমবাংলা ডেস্ক: সিলেট নগরীর জিন্দাবাজারে এক যুবককে সড়ক থেকে ধরে নিয়ে পার্শ্ববর্তী মন্দিরে আটকিয়ে মারধরের অভিযোগ উঠেছে পুলিশের এক এটিএসআইয়ের বিরুদ্ধে। ঘটনার সত্যতা পেয়ে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার (ক্লোজড) করা হয়েছে। এদিকে যুবককে মারধরের প্রতিবাদে স্থানীয়রা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। পরে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশ্বাসে তারা অবরোধ প্রত্যাহার করে নেন। শনিবার বিকাল ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, পুলিশের হাতে লাঞ্ছিত যুবকের নাম এস ডি ইমন। তিনি নগরীর দাঁড়িয়াপাড়া এলাকার বাসিন্দা।

এস ডি ইমন অভিযোগ করেন, অটোরিকশাযোগে তিনি দাঁড়িয়াপাড়া থেকে জিন্দাবাজার পয়েন্টে আসেন। এসময় দায়িত্বরত কোতোয়ালী থানার এটিএসআই মাসুম অটোরিকশাচালক ও তাকে উদ্দেশ্য করে অশ্লীল ভাষায় গালাগাল করেন। এ নিয়ে বাগবিতণ্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে ইমনকে পাশের জগন্নাথ জিউর আখড়ায় (মন্দিরে) নিয়ে মারধর করেন এটিএসআই মাসুম।

এদিকে, পুলিশের হাতে ওই যুবক লাঞ্ছিত হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয়রা জিন্দাবাজার পয়েন্টে এসে অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। পরে কোতোয়ালী থানার এসি ইসমাইল হোসেনসহ পুলিশ সদস্যরা এসে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে বিচারের আশ্বাস দিলে সড়ক অবরোধ তুলে নেয়া হয়।

এ ব্যাপারে নগরীর কোতোয়ালী থানার এসি ইসমাইল হোসেন বলেন, ‘আমরা ওই যুবকের কাছ থেকে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। এ ব্যাপারে তদন্ত করে সত্যতা পেলে পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার জেদান আল মুসা বলেন, ‘জগন্নাথ জিউর আখড়ায় থাকা সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে ওই যুবকের সাথে পুলিশ সদস্য মাসুমের দুর্ব্যবহারের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করা হবে।’

সূত্র: বাংলাদেল প্রতিদিন

জুমবাংলানিউজ/এসএম

জুমবাংলা/এসএম/