জাতীয় রাজনীতি

ভোট বর্জনের প্রশ্নই আসে না, নাসিক নির্বাচন নিয়ে রিজভী

যত শঙ্কাই থাকুক নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (নাসিক) নির্বাচনে বিএনপি ভোট বর্জন করবে না বলে জানিয়েছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, ভোট বর্জনের প্রশ্নই আসে না। বিএনপি শেষ পর্যন্ত থাকবে-এটাই সিদ্ধান্ত।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী একথা বলেন। তিনি বলেন, সরকারের নানা অনিয়ম, দুর্নীতি ও দুঃশাসনের প্রতিবাদের অংশ হিসাবেই এই নির্বাচনে ধানের শীষের পক্ষে গণরায় দেবে।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, রাষ্ট্রীয় অনাচারের তীব্র কষাঘাতে বেদনার্ত মানুষ তাদের প্রতিবাদের অংশ হিসাবে আগামীকাল নারায়ণগঞ্জে ভোটাররা ধানের শীষের প্রার্থী অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খানকে বিপুল ভোটে বিজয়ই করবে। দুঃশাসনের বিরুদ্ধে এক ঐতিহাসিক ভোট বিপ্লব ঘটবে। কোনো বাধাই ধানের শীষের জোয়ার ঠেকাতে পারবে না।

তিনি বলেন, রাত পোহালেই নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ভোট। দৃশ্যত এখনও পর্যন্ত নির্বাচনী পরিবেশ ভাল থাকলেও জনমন থেকে অস্বস্তি ও শংকা দূর হয়নি।

রিজভী আরও বলেন, আজকে পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জে নির্বাচনী পরিবেশ বাহ্যিক দৃষ্টিতে শান্তিপূর্ণ থাকলেও ভয় ও নির্ভয়ের সংশয়ের দোলাচলে মানুষ ভুগছে। সকল ধরণের নির্বাচন নিয়ে আওয়ামী লীগের নিকট অতীত যেহেতু সুখকর নয়, সেহেতু মানুষের মধ্যে কিছুটা সংশয় থাকলেও, এই সংশয়ের মধ্যেও আগামীকালের নির্বাচনের দিন নারায়ণগঞ্জের ভোটার’রা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

বিএনপির এই নেতা বলেন, আমরা বিভিন্ন সূত্র থেকে জানতে পারছি যে, সিটি কর্পোরেশন এলাকার আশেপাশে শাসক দলের ক্যাডার’রা নাকি অবস্থান করবে। প্রত্যক্ষ না হলেও পরোক্ষ কায়দায় নির্বাচনের দিন তারা বিভিন্নভাবে তাদের প্রভাব খাটানোর চেষ্টা করবে। ইতিমধ্যে কিছু কিছু এলাকায় তাদের আনাগোনার খবরও আমরা পাচ্ছি। বিএনপি এখনও দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করে-আগামীকাল অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে সরকারের প্রভাব বিস্তারের কোনো অপতৎপরতা দেখা গেলে তার বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করে ভোটকে শান্তিপূর্ণ করবে নির্বাচন কমিশন।

আগামীকালের ভোট নিয়ে কোনো ধরণের কারসাজি হলে নারায়ণগঞ্জের সাহসী ভোটাররা তা মোকাবেলা করবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন রিজভী।

ইসির উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমরা দলের পক্ষ থেকে আবারো নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানাতে চাই- নির্বাচনের দিন প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সামলানোর জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা রাখা যাতে ভোটাররা নির্ভয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির নেতা আব্দুল কাউয়ুম, আবদুস সালাম, এবিএম মোশাররফ হোসেন, সেলিম ভুইয়া, আসাদুল করিম শাহীন, মুনির হোসেন, আব্দুল আউয়াল খান, হারুন অর রশিদ, খন্দকার আবু আশফাক প্রমুখ।

ভিডিওঃ টাইটানিক ছবির কেট এর এই ছবির রহস্য

Add Comment

Click here to post a comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.