বিনোদন

‘ভালোবাসা এমনই হয়’ আসছে জানুয়ারিতে

মুক্তির অপেক্ষায় অভিনেত্রী তানিয়া আহমেদের প্রথম নির্মিত চলচ্চিত্র ‘ভালোবাসা এমনই হয়’। সম্পূর্ণ লন্ডনে চিত্রায়িত ও নির্মিত এ ছবিটি প্রযোজনা করেছে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম লি.।

 

এ ছবিতে অভিনয় করেছেন বিদ্যা সিনহা মীম, সাজ্জাদ, মীর সাব্বির, তানজিকা আমিন, মিশু সাব্বির, রবার্ট ইয়ং, সোহেল খান, তারিক আনাম খান প্রমুখ। কাহিনী, সংলাপ ও রচনা: রায়হান খান এবং নৃত্য পরিচালনা, চিত্রনাট্য, পরিচালনা করেছেন তানিয়া আহমেদ। চিত্রগ্রহন: রায়হান খান ও হাবিবুল মঞ্জির। আবহ সংগীত: এস.আই টুটুল।

 

সংগীত পরিচালনা ও কম্পোজিশন: এস.আই টুটুল, হাবিব ওয়াহিদ এবং জে. কে। গীতিকার: এস. আই. টুটুল, লতিফুল ইসলাম শিবলী, জাহিদ আকবর, ফারুক হোসেন ও সুুদ্বীপ। কণ্ঠ শিল্পী: এস. আই. টুটুল, কনা, জে. কে, মমো ও নওমি। ফাইট ডিরেক্টর: মাসুম পারভেজ রুবেল ও নীলয় পারভেজ (লন্ডন)। সম্পাদনা: এম. এইচ সোহেল। সাউন্ড মাস্টারিং: আজম বাবু। নৃত্য পরিচালক: তানিয়া আহমেদ, মীম ও মেহরাজ হক তুষার। জানুয়রিতে ছবিটি মুক্তির সম্ভাবনা রয়েছে।

 

গল্প সংক্ষেপ: ইমতিয়াজ ঐশির চাচা যিনি ঐশির ৩ মাস বয়সে ঐশির বাবা মাকে হত্যা করে ঐশিদের ধন সম্পদের লোভে। ঐশি ইমতিয়াজকেই তার বাবা বলে যানে। ইমতিয়াজ সাহেব একজন বড় ব্যবসায়ী। ঐশির যখন ৬ মাস বয়স তখন ইমতিয়াজ সাহেব ব্যবসার প্রয়োজনে লন্ডন চলে যান এবং সেখানেই সেটেল্টড হন। সাথে ঐশিকেও নিয়ে যায়। ঐশি লন্ডনেই বড় হয়।

 

সাজ্জাদ চাকরির সন্ধানে লন্ডন যায় এবং সেখানেই চাকরি করে। লন্ডনে ঐশির সাথে সাজ্জাদরে পরিচয় ও প্রেম হয়। অতঃপর বিয়ে করে তারা দুজন। বিয়ের কিছুদিন পর ঐশি একটা রোড এক্সিডেন্টে মারাত্মক আঘাত পায়, হাসপাতালে যখন জ্ঞান ফেরে তখন ঐশি পুরোনো স্মৃতি সব ভুলে যায়, আগের কোনো কিছুই আর মনে পড়ে না। এমনকি তার স্বামী সাজ্জাদের কথাও না।

 

এদিকে ইমতিয়াজ সাজ্জাদকে মেনে নেয় না। সাজ্জাদকে হুমকি দেয় যদি সে ঐশিকে পেতে চায় তাহলে তাকে হত্যা করা হবে। সাজ্জাদ ঐশিকে ফিরে পেতে নানান ধরনের কৌশল অবলম্বন করে। কিন্তু যখন সে ব্যর্থ হয় তখন সে বুঝতে পারে যে একা ইমতিয়াজের সাথে লড়াই করে সে ঐশিকে পাবে না। তাই সে সঙ্গী খুঁজতে থাকে যাদেরকে সাথে নিয়ে সে লড়াই করে ঐশিকে ফিরিয়ে আনতে পারবে। তখন পরিচয় হয় মাহতাব ও মিশু নামের দুই যুবকের সাথে। যারা বাংলাদেশী এবং তারা বাংলাদেশ পুলিশের তালিকাভুক্ত আসামি।

 

মাহতাব ও মিশু দুটি উদ্দেশ্যে লন্ডন যায় ১. বাংলাদেশর থেকে পালিয়ে থাকা আর ২. মিথিলা নামের একজনকে খুজে বের করে তাকে হত্যা করা। এভাবেই এগিয়ে যায় ছবিটির গল্প।

ভিডিওঃ এই সাইজ নিয়া এরকম ড্যান্স বিশ্বাসই হয় না

Add Comment

Click here to post a comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.