খেলা-ধুলা

ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডার নেইমারের বার্সেলোনা ছাড়াকে ‘উদ্ভট’ বললেন জাভি

ক্লাব বার্সেলোনা তাকে ছাড়তে চায়নি। নিজের সিদ্ধান্তেই বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজিতে পাড়ি জমিয়েছেন নেইমার। কিন্তু ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের এ সিদ্ধান্তকে কিছুতেই স্বাভাবিক বলে মানতে পারছেন না জাভি। বার্সেলোনা ও স্পেনের সাবেক মিডফিল্ডার নেইমারের সিদ্ধান্তটাকে আখ্যায়িত করলেন ‘উদ্ভট’ হিসেবে। বলেছেন, একজন খেলোয়াড় বার্সেলোনায় থাকতে চায় না, এটা বড়ই উদ্ভট! সাবেক সতীর্থের ভুতুরে সিদ্ধান্তে তিনি তাই বিস্মিত, হতবাক।

ক্যারিয়ারের প্রায় পুরোটাই জাভি কাটিয়েছেন বার্সেলোনায়। বার্সেলোনারই যুব একাডেমি থেকে উঠে আসা জাভির কাছে বার্সেলোনা ছিল আপন ঘরের চেয়েও বেশি কিছু। তাকেও অবশ্য সেই ‘আপন ঘর’ ছাড়তে হয়েছে। ২০১৫ সালে বার্সেলোনা ছেড়ে পাড়ি জমিয়েছেন ফুটবলারদের ‘বৃদ্ধাশ্রম’ হিসেবে বিবেচিত কাতারি লীগের দল আল সাদে। সেটা অবশ্য বয়সের কারণেই। বয়সের ভারে ন্যুব্জ জাভির মাঠের পারফরম্যান্সে বয়সের ছাপটা স্পষ্ট ছিল। ক্লাব বার্সেলোনাই তাই ছেড়ে দেয় তাকে।

কিন্তু ক্লাব ধরে রাখতে চাইলেও কোনো খেলোয়াড় নিজের ইচ্ছায় বার্সেলোনা ছেড়েছেন এ রকম নজির খুব কমই আছে। ক্লাবের চাওয়ার বিপরীতে গিয়ে নামি কোনো খেলোয়াড়ের নিজের ইচ্ছায় বার্সেলোনা ছাড়ার সর্বশেষ ঘটনা ঘটেছিল ১৭ বছর আগে! ২০০০ সালে লুইস ফিগোকে জোর করে বার্সেলোনা থেকে নিজেদের দলে ভিড়িয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ। সেটাও অবশ্য নেইমারের ঘটনার মতোই বিশাল অংকের টাকার লোভ দেখিয়ে। তৎকালীন ট্রান্সফার ফি’র বিশ্ব রেকর্ড গড়েই ফিগোকে বার্সেলোনা থেকে ছিনিয়ে নিয়েছিল রিয়াল।

সেই ঘটনার উদাহরণ টেনেই ফরাসি পত্রিকা লি প্যারিসিয়েনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ৩৭ বছর বয়সী জাভি বলেছেন, ‘এটা একান্তই তার নিজের সিদ্ধান্ত। তার সিদ্ধান্তটাকে আপনার সম্মান জানাতেই হবে। বর্তমানে খেলোয়াড়রা সেখানেই যায়, যেখানে তারা বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে। তবে সে বার্সেলোনা ছাড়বে এটা কেউ কল্পনাও করতে পারেনি।’

এরপরই জাভি বলেছেন আসল কথাটা, ‘একজন খেলোয়াড়ের বার্সেলোনা ছাড়তে চাওয়াটা উদ্ভটই। এটা বিরল ঘটনা। ১৭ বছর আগে লুইস ফিগো বার্সেলোনা থেকে রিয়াল মাদ্রিদের যোগ দিয়েছিল। এবার নেইমার সেই কাজটাই করল। আর সিদ্ধান্তটাও নিয়েছে সে নিজেই।’ ঠিক কি কারণে নেইমার বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজিতে গেলেন, তা বুঝতে পারছেন না জাভিও, ‘আমি জানি না কীভাবে এটা ঘটল। বৈঠকের পর বৈঠক, কথোপকথন… এই রেকর্ড ট্রান্সফার চুক্তি নিয়ে কত ব্যাখ্যাই তো শুনলাম।’ নেইমার চলে যাওয়ায় বার্সেলোনা সমর্থকরা এই ব্রাজিলিয়ানের ওপর খুবই ক্ষুব্ধ। সেই প্রসঙ্গে টেনে জাভি বলেছেন, ‘বুঝতে পারছি সমর্থক মর্মাহত। কারণ নেইমার ক্লাব ছাড়ার কোনো ব্যাখ্যাই দেননি। কোনো সংবাদ সম্মেলন বা আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু না করেই সে বার্সেলোনা ছেড়েছে। এ কারণেই সমর্থকরা ক্ষুব্ধ।’

সমর্থকদের মতো জাভি নিজেও যে এভাবে চলে যাওয়ায় হতাশ, বোঝা গেল তার পরের কথাতেই, ‘দেখা যাক, পিএসজিকে সে কতটা কি দিতে পারে। আমি নিশ্চিত বার্সেলোনাও কখনও ভাবেনি, কোনো ক্লাব ২২২ মিলিয়ন রিলিজ ক্লজ পরিশোধ করে নেইমারকে দলে নেবে।’





সর্বশেষ খবর