স্বাস্থ্য

ব্যায়াম বিষয়ে কিছু ভুল ধারণা

ফিটনেস বিষয়ে যদি পরামর্শ খোঁজেন, তাহলে মিলবে হাজার হাজার। তবে অনেক পরামর্শই কিন্তু ভালোর চেয়ে খারাপটাই বেশি ডেকে আনে। এ কারণে ফিটনেস ধরে রাখার বিষয়ে এমন অনেক বিষয় রয়েছে যা কিনা একেবারেই মিথ্যাচার। অথচ এগুলো সত্য মন্ত্র হিসাবে ছড়িয়ে রয়েছে। বিশেষজ্ঞরা মূলত এই মিথ্যা পরামর্শগুলো খুঁজে বের করে তুলে ধরেছেন বিজ্ঞানীরা।

১. অনেকেই মনে করেন ট্রেডমিলে দৌড়ালে হাঁটুতে কম চাপ পড়ে। এটা আসালে ভুল ধারণা। বাইরে রাস্তায় বা মাঠে দৌড়ালে যে বেশি চাপ পড়ে তা নয়। ট্রেডমিলেই দৌড়ান বা বাইরে রাস্তায়, তাকে হাঁটুতে একই ধরনের চাপ পড়বে। তবুও মনে সন্দেহ থাকলে আপনি দুটোতেই কাজ সারতে পারেন।

২. ক্রাঞ্চ করলে পেটের চর্বি চলে যায় এবং সিক্স প্যাক হবে ধারণাটাও ঠিক নয়।
ক্রাঞ্চের মাধ্যমে আপনার দেহের কাঠামোর উন্নতি হবে। কিন্তু ক্রাঞ্চ দেহের নির্দিষ্ট কিছু পেশিতে কাজ করে। তবে কেবলে এটা দিয়ে পেটের চর্বি ঝরানো সম্ভব নয়। এর সঙ্গে প্লাঙ্কস এর মতো ব্যায়ামের যোগ ঘটাতে হবে। এটি পেটের পেমিতে সরাসরি কাজ করে।

৩. ব্যায়ামের পুরোটা সময় ঠিকঠাক মতো দিলেই তা কাজে লাগে বলে মনে করেন অনেকে। বিষয়টি তা নয়। যখন ব্যায়াম করবেন তখন তাতে মনোযোগ দিতে হয় বৈকি। তাই বলে যে শতভাগ সময় নিখুঁতভাবে কাজে না লাগালে ব্যায়াম করে কোনো লাভ হবে না তা নয়। মনে রাখবেন, নিজের ক্ষমতার বাইরে কিছু করার চেষ্টা করবেন না। বরং সময় নির্দিষ্ট করে সঠিক পদ্ধতিতে ব্যায়াম করুন। অল্প অল্প সময় ধরে সেই সময়ের ব্যায়াম যেন ঠিকঠাক থাকে সেদিকে মন দিন।

৪. ব্যায়ামের পর খনিজ ও ইরেকট্রোলাইটের সরবরাহের জন্য কেবল স্পোর্টস ড্রিঙ্কসের ওপর নির্ভর করেন অনেকে। এটা ভুল তথ্য। এসব পানীয়তে কেবর চিনি আর পানির মিশেল থাকে। এটা আপনি বাড়িতেই বানিয়ে নিতে পারেন। বরং বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদিত পানীয়তে থাকে কৃত্রিম ফ্ল্যাভার এবং রাসায়নিক পদার্থ। ব্যায়ামের পর বাড়িতে লেবুর শরবত বানিয়ে খেলে সবচেয়ে বেশি উপকার।

৫. ব্যায়ামের আগে স্ট্রেচিং পরে আঘাত থেকে রক্ষা করে বলে পরামর্শ দেন প্রশিক্ষকরা। এটা পুরোপুরি ঠিক তা নয়। আসলে স্ট্রেচিং কঠিন ব্যায়ামের জন্য আপনার শরীরকে প্রস্তুত করে নেয়। তার মানে এই নয় যে, এটি ব্যায়ামের সময় অনাকাঙ্ক্ষিত আঘাত থেকে আপনাকে রক্ষা করবে। যেকোনো মুহূর্তে ব্যায়াম করতে গেলে আঘাত লাগতেই পারে। তবে স্ট্রেচিং করা ভালো।

৬. ফিট হতে ম্যারাথন দৌড় দিতে হবে, নইলে ফিটনেস আসবে না। এটা ভুল। ম্যারাথনের জন্য যে প্রস্তুতি তা নিতে পারলে খুবই ভালো। এতে আপনার দম বাড়বে। শক্তিও বাড়বে। কিন্তু ফিটনেসের জন্য আরো অনেক ব্যায়াম আছে। ম্যারাথনই যে একমাত্র ভরসা তা নয়।

৭. মেশিন সব সময় উন্নত দেহ গঠনে সেরা বলে মনে করাটা ভুল হবে। বরং ফ্রি-হ্যান্ড ব্যায়ামের কোনো তুলনা নেই। মেশিন ছাড়াই আপনি অনেক ধরনের ফ্রি-হ্যান্ড ব্যায়ামের মাধ্যমে দারুণ শক্তপোক্ত দেহ পেতে পারেন। মেশিনের মাধ্যমে দেহের বিভিন্ন অঙ্গের নড়াচড়া একটি নির্দিষ্ট সীমার মধ্যে ঘুরপাক খায়। কিন্তু ফ্রি-হ্যান্ড করলে দেহ তার সীমাকেও পেরিয়ে যেতে পারে।