খেলা-ধুলা

বিরাটদের আটকাতে শ্রীলঙ্কার বিশেষ পদক্ষেপ

এক দল যখন ইতিহাসের সামনে দাঁড়িয়ে, তখন অন্য দলের সামনে সম্মান বাঁচানোর লড়াই। পাল্লেকেলেতে সিরিজের তৃতীয় টেস্টেও জিতলে এক নতুন কীর্তি গড়বেন বিরাট কোহলিরা।
জিতলে এই প্রথম কোনও ভারতীয় দল হিসাবে বিদেশের মাটিতে টেস্ট সিরিজে বিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করবে।

এদিকে ইতিমধ্যেই সিরিজ হাতছা়ড়া হয়ে যাওয়া শ্রীলঙ্কার সামনে মান বাঁচানোর লড়াই। ঘরের মাটিতে সম্প্রতি এরকম নাস্তানাবুদ হতে হয়নি তাদের। সম্মানরক্ষার লড়াইয়ে ভারতকে সবুজ পিচে ফেলতে চলেছে শ্রীলঙ্কা। শুক্রবার সকাল পর্যন্ত পাল্লেকেলের উইকেটে এতই ঘাস যে, মাঠের সঙ্গে বাইশ গজের খুব একটা তফাত করা যাচ্ছিল না। পরে দু’দফায় ঘাস ছাঁটা হয়। তবু পাল্লেকেলের উইকেট জোরে বোলারদের সাহায্য করবে বলেই ইঙ্গিত।

শ্রীলঙ্কার নির্বাচক কমিটির প্রধান সনৎ জয়সুরিয়া স্বয়ং দাঁড়িয়ে থেকে পিচ প্রস্তুতির কাজ তদারকি করেছেন। প্রথম দুই টেস্টে ব্যাটিং ও ঘূর্ণি পিচ বানিয়ে ভরাডুবির পর শেষ টেস্টে ভারতকে পেস-অস্ত্রে ঘায়েল করার পরিকল্পনা নিয়েছে শ্রীলঙ্কা শিবির।

সাংবাদিক সম্মেলনে কোহলিকে পিচ নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল। ভারত অধিনায়ক ম্যাচের আগের দিন উইকেট দেখেননি। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘‘টিম ম্যানেজমেন্টের প্রতিনিধিরা স্টেডিয়ামে গিয়ে উইকেট দেখে এসেছেন। শুনেছি পিচের কিছু পরিবর্তন হয়েছে। তাই উইকেট দেখতে প্রতিনিধি পাঠানো হয়েছে। যাতে ম্যাচের আগে পিচ নিয়ে একটা স্পষ্ট ধারণা পাওয়া যায়। ’’

হোয়াইটওয়াশের লজ্জা এড়ানোর জন্য শ্রীলঙ্কা শিবির যে কতটা মরিয়া, তার ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছে অধিনায়কের কথায়। সাংবাদিক সম্মেলনে দীনেশ চাণ্ডিমাল বলেছেন, ‘‘সিরিজ এখনও শেষ হয়ে যায়নি। অধিনায়ক হিসাবে আমি হারতে পছন্দ করি না। সেটা বিশ্বের এক নম্বর দল হোক কী আট নম্বর। আমি জিততে চাই। তার জন্য সম্পূর্ণ চেষ্টা করছি। তবে ফলাফলের ওপর আমাদের কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই। ’’

পেস-সহায়ক পিচে তিন পেসার দিয়ে বোলিং আক্রমণ সাজানোর ইঙ্গিত দিয়েছেন চাণ্ডিমাল। আহত রঙ্গনা হেরাথ ও নুয়ান প্রদীপের পরিবর্ত হিসাবে দুই তরুণ পেসার দুষ্মন্ত চামিরা এবং লাহিরু গামাগে-কে দলে নেওয়া হয়েছে। চাণ্ডিমাল বলেছেন, ‘‘দুই সিনিয়র বোলার না থাকায় ওদের সামনে নিজেদের প্রমাণ করার দারুণ সুযোগ। আশা করছি ওরা ঝাঁপিয়ে পড়বে। ’’