বার্সা ত্যাগের পরেই বিশ্বকাপ জিতেছিলেন ম্যারাডোনা

স্পোর্টস ডেস্ক : এতে কোনো সন্দেহ নেই যে, আর্জেন্টিনার লিওনেল মেসি বিশ্ব ফুটবলের জীবন্ত কিংবদন্তি। তার ক্যারিয়ারজুড়ে আক্ষেপ একটাই- বিশ্বকাপ শিরোপা জিততে না পারা। মেসির বর্তমানে যে বয়স, তাতে আগামী বিশ্বকাপে নিশ্চিতভাবেই খেলতে পারবেন। তবে এই মুহূর্তে সারাবিশ্বে আলোচনায় মেসির বার্সেলোনা ত্যাগ। অনেকে মেসির হাতে শিরোপা দেখতে বার্সা ত্যাগকে সমর্থন জানাচ্ছেন। উদাহরণ হিসেবে উঠে আসছে আরেক কিংবদন্তি দিয়াগো ম্যারাডোনার ইতিহাস।

আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ মহানায়ক ম্যারাডোনার সঙ্গে হরহামেশাই মেসির তুলনা করা হয়। দুজনেই খেলেন জাদুকরী ফুটবল। ৩৬ বছর আগে ১৯৮৪ সালে বার্সেলোনা ছেড়েই নাপোলিতে যোগ দিয়েছিলেন ডিয়েগো ম্যারাডোনা। এরপর তৈরি হয় নতুন ইতিহাসের। সেই বিখ্যাত তথা সমালোচিত ‘হ্যান্ড অব গড’ এর মাধ্যমে আর্জেন্টিনাকে বিশ্বকাপ জেতান তিনি। মেসিভক্তরা আশা করছেন, তাদের প্রিয় তারকা বার্সেলোনা ত্যাগ করে আগামী কাতার বিশ্বকাপে ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি ঘটাবেন।

মেসির মতোই বার্সেলোনায় নিজের মানসিক শান্তি হারিয়ে ফেলেছিলেন ম্যারাডোনা। যার প্রভাব পড়েছিল তার পারফর্মেন্সে। নাপোলিতে ম্যারাডোনার যেন পুনর্জন্ম হয়েছিল। নিজেকে পরিপূর্ণভাবে মেলে ধরতে পেরেছিলেন। সাদামাটা ক্লাব নাপোলিকে তিনি প্রথমবারের মতো জিতিয়েছিলেন সিরি আ, কোপা ইতালিয়া আর উয়েফা কাপের শিরোপা। ১৯৮৬ বিশ্বকাপ জয়ের পর ১৯৯০ বিশ্বকাপেও তিনি আর্জেন্টিনাকে শিরোপার কাছাকাছি নিয়ে গিয়েছিলেন। মেসি কি পারবেন নতুন গন্তব্যে গিয়ে ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি ঘটাতে?