বিনোদন

বাংলা ছবির সব পরিচালকের পছন্দের তালিকায় জয়া আহসান

তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার জয়ী বাংলাদেশের অভিনেত্রী জয়া আহসানের টালিউড জয় করতে লেগেছে পাঁচ বছর। অনেকের কাছেই তার সাফল্য বেশ ঈর্ষণীয়। তার অসাধারণ অভিনয়, নজর কাড়া চেহারা এবং ব্যক্তিত্বের কারণে তিনি এখন ভারতের বাংলা ছবির সব পরিচালকেরই পছন্দের তালিকায় আছেন। আর তা নিয়েই ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়াতে প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে।

অরিন্দম শীল পরিচালিত ২০১২ সালের ‘আবর্ত’ ছবির মাধ্যমে টালিউডে অভিষেক হয় জয়া আহসানের। এরপর নানান চড়াই উৎরাই পেড়িয়ে জয়া এখন পরিচালকদের কাঙ্ক্ষিত নায়িকা। সৌন্দর্য এবং মেধার দুর্লভ সংমিশ্রণের কারণেই সবার পছন্দের তালিকা জুড়ে আছেন তিনি।

 

সৃজিত মূখার্জির ‘রাজকাহিনী’ ছবিতে সাহসী দৃশ্যে অভিনয় করেছিলেন তিনি। সেই দৃশ্য প্রচুর প্রশংসা কুড়ায়। অবশ্য কিছু সমালোচকের কটু মন্তব্যও শুনতে হয়েছিল সেই দৃশ্যের জন্য। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, টালিউডের ছবিতে বাংলাদেশের উচ্চারণ ছাড়া তার আর কোনো দুর্বলতাও দেখছেন না সমালোচকরা। একারণে শোনা গেছে ‘আমি জয় চ্যাটার্জি’ ছবিতে জয়ার কথাগুলো ডাবিং করে নিতে হয়েছে।

কলকাতায় ক্যারিয়ার গড়তে অবশ্য বেশ পরিশ্রম করতে হচ্ছে থাকে। ভাড়া করা বাড়িতে থেকে ট্যাক্সি ক্যাবে চলাচল করতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। আবার টলিউডে একাধিক ব্যক্তির সঙ্গে তার সম্পর্কের গুঞ্জনও শোনা যায়। তবে তার জীবনে বিশেষ কেউ একজন আছেন, এই ইঙ্গিত তিনি নিজেই বিভিন্ন সময় দিয়েছেন।

এ বছর এ পর্যন্ত মুক্তি পেয়েছে জয়ার দুটি ছবি। একটি কৌশিক গাঙ্গুলীর ‘বিসর্জন’ এবং আরেকটি ইন্দ্রনীল রায় চৌধুরীর শর্ট ফিল্ম ‘ভালোবাসার শহর’। শোনা যাচ্ছে যে নন্দিতা রায় এবং শিব প্রসাদ মূখার্জির ‘কণ্ঠ’তেও দেখা যাবে জয়াকে। এছাড়াও অঞ্জন দত্তের পরবর্তী কাজে বড় এক টালিউড তারকার সঙ্গেও নাকি জুটি বেঁধে কাজ করতে দেখা যাবে বাংলাদেশের জয়াকে।