খেলা-ধুলা

বাংলাদেশের নতুন কোচের ‘তালিকা’য়ভারত-পাকিস্তানের যে তারকা আছেন

bcb‘ভালো মানের কোচ পাওয়া সহজ ব্যাপার নয়। আমরা মোটেও তাড়াহুড়ো করতে চাই না। আপাতত দেশীয় কাউকে দিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন দায়িত্ব চালিয়ে নেয়া হবে। সেই সাথে আমরা ভালো মানের একজন বিদেশী কোচ খুঁজব। উপমহাদেশের কোচকে অগ্রাধিকার দিতে চাই। যাতে এ কন্ডিশনের সাথে সহজেই তিনি খাপ খাইয়ে নিতে পারেন।’ গতকাল এমনটাই জানালেন বিসিবি মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস।

মুদাসসর নজর থেকে শুরু করে চন্দিকা হাতুরাসিংহে, সবাই বিদেশী। এদের মধ্যে সবচেয়ে সফল হাতুরাসিংহে। তার চুক্তির মেয়াদ ২০১৯ সালের বিশ্বকাপ পর্যন্ত। যদি কোনো কারণে তিনি না থাকেন, তখন উপমহাদেশের কোচই দেখা যাবে, প্রায় নিশ্চিত। বিসিবিতে নতুন কোচের ‘তালিকা’য় আছেন ভারত-পাকিস্তানের কোন কোন তারকা? এ ক্ষেত্রে অনিল কুম্বলে, রাহুল দ্রাবিড়, আকিব জাভেদ, ওয়াকার ইউনুসদের মতো সেলিব্রেটি কোচ দেখা গেলে অবাক হওয়ার কিছু নেই।

এক মাস আগে পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ শেষে ওই পথেই অস্ট্রেলিয়া চলে গিয়েছিলেন চন্দ্রিকা হাথুরুসিংহে। এরপর থেকে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও সাড়া পায়নি বিসিবি। তবে আগের অবস্থান পাল্টেছেন তিনি। বিসিবির যোগাযোগে সাড়া দিয়েছেন লঙ্কান এ কোচ। বিসিবির কথা হয়েছে তার সাথে। তবে কী কথা হয়েছে তা জানাতে চাননি বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস।

হাথুরুকে কি সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করার অনুরোধ করা হয়েছে? এমন প্রশ্নের জবাবে জালাল ইউনুস বলেন, ‘ওর সাথে যোগাযোগ করছেন বিসিবির সিইও। হাথুরু ঢাকায় আসতে পারেন। তবে কবে আসবেন তা জানি না। হাথুরুর সাথে আরো কী কথা হয়েছে, আমি বলতে চাচ্ছি না।’

তবে জালাল ইউনুস না বললেও মনে করা হচ্ছে, হাথুরুকে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করার অনুরোধ করা হয়েছে বিসিবির পক্ষ থেকে। গত বছরও একবার পদত্যাগ করতে চেয়েছিলেন হাতুরা। বিসিবি তখন বুঝিয়ে সুজিয়ে বাংলাদেশ দলের সাথে থাকতে রাজি করিয়েছিলেন তাকে। তবে পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে এবার তার ফেরার সম্ভাবনা খুবই কম বলে মনে করা হচ্ছে। বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যানও তা মনে করছেন। এ কারণে নতুন কোচের দিকেও অগ্রসর হচ্ছে বিসিবি।

পরিসংখ্যান বলছে, বাংলাদেশের সবচেয়ে সফল কোচ চন্দ্রিকা হাথুরুসিংহে। গর্ডন গ্রিনিজ, ট্রেভর চ্যাপেল, ডেভ হোয়াটমোর, স্টুয়ার্ট লদের ছাপিয়ে সেরা কোচও। সাড়ে তিন বছর কোচ থাকা অবস্থায় বিশ্বকাপ ক্রিকেটের কোয়ার্টার ফাইনাল, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনাল খেলেছে বাংলাদেশ। ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, পাকিস্তানের বিপক্ষে। টেস্টে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা, ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়াকে। এমন সাফল্যের পরও কিছু ব্যক্তিগত আচরণে সমালোচনার তীর সইতে হয়েছে তাকে। সাফল্য, সমালোচনা-সব মিলিয়ে সাড়ে তিন বছর দাপটের সাথে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের কোচ ছিলেন। কিন্তু হঠাৎ সবাইকে বিস্মিত করে পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দেন বিসিবিতে।

যদিও তার পদত্যাগপত্র এখনো গ্রহণ করেনি বোর্ড। ফেরানোর চেষ্টা করছে। যদি হাথুরুসিংহে শেষ পর্যন্ত না ফেরেন, তাহলে নতুন কোচের নিয়োগ দিতে বিসিবি সময় নেবে এবং তাহলে নতুন কোচ হতে পারে উপমহাদেশের। শুধু তা-ই নয়, আগামী জানুয়ারিতে ঘরের মাটিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এবং তিন জাতির টুর্নামেন্টে অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে দেশের কাউকে নিয়োগ দেয়ারও আভাস দিয়েছেন জালাল ইউনুস। দেশীয় দু’জনের নাম গুঞ্জনে রয়েছে। অভিষেক টেস্টের সেঞ্চুরিয়ান আমিনুল ইসলাম বুলবুল ও বিসিবি পরিচালক ও সাবেক টেস্ট অধিনায়ক খালেদ মাহমুদের নাম।

হাথুরুসিংহে হঠাৎ সরে যাওয়ায় বিস্মিত হয়েছে বিসিবি। সিদ্ধান্তটি পুনর্বিবেচনা করতে বিসিবি সিইও নিজামুদ্দিন চৌধুরী সুজন তার সাথে কথা বলেছেন- বললেন জালাল ইউনুস, ‘বিসিবি সিইও তার সাথে যোগাযোগ করেছেন। হয়তো পুনর্বিবেচনার জন্য বলা হয়েছে।

এখন সে তার সিদ্ধান্তে অটল থাকবেন কি না, তিনিই জানেন।’ শোনা যাচ্ছে তিনি শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট দলের দায়িত্ব নিতেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সর্বশেষ খবর হচ্ছে, ক্রিকেট শ্রীলঙ্কার সভাপতি সুমাথিপালা জানিয়েছেন, ক্রিকেট শ্রীলঙ্কা এখনো তার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়নি। এটা ভেবেই হয়তো বিসিবি তাকে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার জন্য বলেছে।