ক্রিকেট (Cricket) খেলাধুলা

ফের ব্যর্থ সৌম্য সরকার, এবার দলে অবদান মাত্র ১ রান

স্পোর্টস ডেস্ক : ওয়ানডে সিরিজের তিন ম্যাচে তিন নম্বরে ব্যাট করে সৌম্য সরকারের ব্যাট থেকে বাংলাদেশ পেয়েছিল কেবল ৫০ রান। এর মধ্যে শেষ ম্যাচে রানই করতে পারেননি তিনি। আগের দুই ম্যাচের একটিতে ৩০ এবং অন্যটিতে ২০ রান। তবে, এই পারফরম্যান্স দিয়েও শেষ পর্যন্ত টেস্ট দলে জায়গা পান সৌম্য।

যদিও শুরুতে টেস্ট সিরিজের জন্য সৌম্য সরকারকে দলে রাখেনি নির্বাচকরা। কিন্তু টেস্টের নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বিপিএলের ফাইনালে আঙ্গুলে চোট পান। যে কারণে, তিনি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজেও খেলতে পারেননি। টেস্ট সিরিজেও তাকে দলে পাওয়ার নিশ্চয়তা নেই। এ কারণেই তার পরিবর্তে টেস্টের জন্য রেখে দেয়া হয়েছিল সৌম্যকে।

কিন্তু ফের ব্যর্থ সৌম্য সরকার। তাৎক্ষণিক চাপের মধ্যে বিচক্ষণতার পরিচয় দিতে পারেননি তিনি। টিম সাউদিকে উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসেন বাঁহাতি ব্যাটার। নয় বল খেলে তিনি এক রান করে আউট হন।

টস জিতে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। তবে শুরুটা শুভ হয় টাইগারদের। উড়ন্ত সূচনা এনে দেন তামিম ইকবাল ও সাদমান ইসলাম। ৩২ বলে ২৪ রান করে ট্রেন্ট বোল্টের বলে বোল্ড হয়ে মাঠ ছাড়েন সাদমান। এতে ভাঙে ৫৭ রানের উদ্বোধনী জুটি।

এরপর নতুন ব্যাটসম্যান মুমিনুল হককে দর্শক বানিয়ে শটের রোমাঞ্চ ছড়ান তামিম। ১৩ ওভারের প্রথম তিন বলে বোল্টকে টানা তিনটি চার মেরে মাত্র ৩৭ বলে হাফসেঞ্চুরি করেন তিনি। সতীর্থের সঙ্গে দারুণ জুটি গড়ে তোলেন এ ওপেনার। তাতে দুরন্ত গতিতে ছুটছিল বাংলাদেশ। কিন্তু হঠাৎ ছন্দপতন। একের পর এক উইকেট হারিয়ে শেষ পর্যন্ত ২৩৪ রানে অলআউট হয় টাইগাররা।

জুমবাংলানিউজ/এইচএম