অপরাধ/দুর্নীতি

প্রেমিকার ফাঁদে পা দিয়ে প্রেমিকের বেহাল দশা!

প্রেমের সম্পর্কের কারণে কত রকমের বিপত্তিই না ঘটে মানুষের জীবনে। ভারতের পশ্চিম মেদিনীপুরের তেমনি এক ঘটনা সাড়া ফেলে দিয়েছে।

পাশের গ্রামের এক কিশোরীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল শেখ শিন্টুর। রাতে প্রেমিকার ফোন পেয়ে পাঁচিল টপকে প্রেমিকার বাড়িতে প্রবেশ করার চেষ্টা করে সে৷ এরপর এক সঙ্গীসহ ধরা পড়ে যায় প্রেমিকার পরিবারের লোকজনের হাতে। সঙ্গীসহ প্রেমিক শিন্টুকে গাছে বেঁধে রাতভর বেধড়ক পেটায় প্রেমিকার পরিবারের লোকজন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশপুর থানার ফারাম গ্রামের ওই কিশোরীর সঙ্গে সেখ শিন্টু-র দীর্ঘদিনের প্রেম ছিল। প্রেমিকার পরিবারের লোকজন তা মেনে নিতে পারেনি। বিষয়টি নিয়ে গ্রামের তৃণমূল নেতাদের কাছেও যায় প্রেমিকার পরিবার৷ সেখানে শিন্টুকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা ধার্য করেছিল তৃণমূলের লোকজন৷ কিন্তু শিন্টুর পরিবার তা দিতে অস্বীকার করে৷ এর পরেও সম্পর্ক টিকিয়ে রেখেছিল শিন্টু৷

এর পরেই ফাঁদ পেতে শিন্টুকে ধরা হয়। গত শনিবার রাতে মোবাইল উপহার দেবে বলে ওই কিশোরী শিন্টুকে ডাকে। রাত ১১টা নাগাদ এক বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে শিন্টু সেখানে যায়৷ ওই কিশোরীর বাড়ির প্রাচীর টপকে ঢুকে পড়ে শিন্টু৷ তখনই সেখানে অপেক্ষায় থাকা কিশোরীর পরিবার ধরে ফেলে শিন্টুকে৷ ধরা পড়ে শিন্টুর সঙ্গীও৷ এরপর গাছে বেঁধে তাদেরকে মারধর করে ওই কিশোরীরর পরিবার।

পরেরদিন রোববার সকালে কেশপুর থানার পুলিশ গিয়ে ওই দুজনকে উদ্ধার করে। একই সঙ্গে মারধরে জড়িত তিনজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

Advertisements