খেলাধুলা

প্রতিবাদ করলেন শাহজাদ, জোর করে দল থেকে বাদ দেয়ার অভিযোগ

ফাইল ছবি

স্পোর্টস ডেস্ক : আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯-এ ২টি ম্যাচ খেলেছেন মোহাম্মদ শাহজাদ। তারপরেই টিম ম্যানেজমেন্ট থেকে জানানো হয় চোটের কারণে তিনি আর খেলতে পারবেন না। তবে শাহজাদ জানিয়েছেন তিনি এখন সম্পূর্ণ ফিট আছেন। তবুও জোর করেই তাকে দল থেকে বাদ দেয়া হয়েছে।

পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে হাঁটুতে চোট পেয়েছিলেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। তবে চোটটা তেমন গুরুতর না হওয়ার মূল ম্যাচে খেলতে কোনো সমস্যা হয়নি তার। কিন্তু ব্যাট হাতে ছিলেন ব্যর্থ। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ১ম ম্যাচে রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফিরে যান তিনি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পরের ম্যাচে করেছিলেন ৭ রান।

চোট কারণে শাহজাদ দল থেকে ছিটকে গেছেন জানিয়ে নতুন উইকেটরক্ষক দলে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য আইসিসির কাছে আবেদন করেছিল আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (এসিবি)। শাহজাদের বদলে ইকরাম আলি খিলকে দলে নেয়া হয়েছে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দলীয় ৩য় ম্যাচে মাঠেও নেমেছেন ইকরাম।

তবে শাহজাদ আবেগি হয়ে পড়েন এবং তিনি জানান যে তাকে জোরপূর্বক বিশ্বকাপের দল থেকে বাদ দেয়া হয়েছ্রে। এইজন্য তিনি এসিবিকে কাঠগড়ায় দাঁড় করান। আফগানিস্তানের জৈষ্ঠ ক্রীড়া সাংবাদিক ইবরাহিম মোমান্দ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে শাহজাদের অভিযোগের বিষয়টি শেয়ার করলে তা মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে।

এই আফগান উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান জানিয়েছেন, ‘আমার চোটের সমস্যা আর নেই কিংবা অন্য কোনো সমস্যাও নেই। আমি এখন পুরোপুরি সুস্থ। এসিবি আমার সাথে কোনো আলোচনা না করেই জোরপূর্বক আমাকে স্কোয়াড থেকে বাদ দিয়েছে।’

বিশ্বকাপ স্কোয়াদ থেকে বাদ পড়ার পর আগামী সোমবার (১০ জুন) ৩২ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারের দেশে ফেরার দিন নিশ্চিত করা হয়েছে।

জুমবাংলানিউজ/এসএস