বিনোদন

পুুরুষের লাঞ্চনার স্বীকার হয়েছিলেন ম্যাডোনা

৫৮ বছর বয়সী পপ কুইন ম্যাডোনা এবার বিলবোর্ড ম্যাগাজিনের বিচারে ‘ওম্যান অব দা ইয়ার’ নির্বাচিত হয়েছেন। সঙ্গীতে ২০১৬ সালে তার অবদান ও অর্জনের জন্য তাঁকে এই সম্মাননা দেয়া হয়। ম্যাডোনা তাঁর ঘনিষ্ঠ বন্ধু এন্ডারসন ক্রুপার হাত থেকে সম্মাননা পদকটি নেন। এর আগে এন্ডারসন বান্ধবী ম্যাডোনাকে ট্রিবিউট করে একটি বক্তৃতা দেন। তিনি বলেন ম্যাডোনা শুধু এই বছর নয়, ১৯৮২ সালে তাঁর বের হওয়া প্রথম অ্যালবামের থেকেই সে আমার কাছে প্রতি বছরের ‘ওম্যান অব দ্যা ইয়ার’। ৩৪ বছরের সঙ্গীত ক্যারিয়ারে তাঁর ঝুলিতে রয়েছে অজস্র অ্যাওয়ার্ড। সম্মানিত হয়েছেন বিশ্বের নানা প্রান্তে। জীবনে ছুঁয়েছেন একের পর এক মাইলফলক। তাঁরই মধ্যে আরও একটি পুরস্কারের সংখ্যা যোগ হল বছর শেষে এসে।

এদিকে পুরস্কার হাতে নিয়ে ম্যাডোনা উপস্থিত অতিথি ও দর্শকদের উদ্দেশ্যে ১০ মিনিটের একটি শক্তিশালী বক্তব্য প্রদান করেন। তাঁর সেই বক্তৃতায় ক্যারিয়ারের শুরু থেকে যেই পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছে তাঁর কথা সরাসরি জানান। অনিরাপদ নিউইয়র্কে এসেই তিনি ডাকাতি আর ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন। তিনি দৃঢ় মনোবল আর মুখে মুচকি হাঁসি নিয়ে বললেন, কিভাবে তিনি মিউজিক ইন্ডাস্ট্রিতে এসেই পুরুষতান্ত্রিক সমাজের দ্বারা তিরস্কৃত হয়েছেন। তাঁর সাবেক স্বামী শন প্যানকে সরি বলে জানালেন, তিনি অস্তিত্বহীনতায় ভুগছিলেন তাই তালাক নিয়েছেন।

ম্যাডোনা উচ্ছেসিত সুরে বলেন, বিচ্ছেদের পর পত্রিকায় নিউজ পড়ে দেখলাম তাঁরা আমাকে নানাভাবে লাঞ্ছিত করেছে, এমনকি আমাকে শয়তানও বলা হয়েছে। কিন্তু কেন? আর আমি তখনই প্রথম বুঝতে পারলাম নারীরা কখনই পুরুষদের মত স্বাধীন নয়। তিনি নারী দর্শকদের উদ্দেশ্য করে বলেন, মনে রাখবেন আমাদের নিজের মূল্যায়ন নিজেদেরই করতে হবে। আর নিজের আত্মবিশ্বাসের চেয়ে বিশ্বস্ত কিছু এই পৃথিবীতে নেই।

ম্যাডোনা কৃতজ্ঞতার সুরে জানালেন, আজ আমার এখানে আসার জন্য আপনাদের অবদান কতটুক আপনারা নিজেরাও জানেনন না। আপনাদের সমর্থন আর উপস্থিতি আপাকে সবসময় শক্তিশালী করেছে, আমাকে যোদ্ধা হিসেবে তৈরি করেছে। আমাকে সাফল্যের প্রতি করেছে আরও ত্বরান্বিত। আজ আমি যেই ‘নারী’, তাঁকে আপনারাই তৈরি করেছেন। তাই আপনাদের ধন্যবাদ।

ভিডিওঃ যে গাড়ি দেখলে আপনার মাথা আউলা ঝাউলা হয়ে যাবে (ভিডিও)

জুমবাংলানিউজ/ জিএলজি