জাতীয় রাজশাহী

নিজের বুক কেটে রক্ত দিয়ে নৌকা মার্কায় সিল যুবকের

বগুড়া প্রতিনিধি : আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে দেশের মানুষ কতটা ভালোবাসেন, তার নজির গতকাল রবিবারই দেখেছে গোটা বিশ্ব। কিন্তু এই ভালোবাসা কতটা বিপজ্জনক হতে পারে, তা সম্পর্কে ধারণা বোধ হয় খোদ বঙ্গবন্ধুকন্যারই নেই। ভোটের দিন সেই নজির দেখা গেলো বগুড়ায়।

এদিন দুপুরে জেলার শেরপুরের মির্জাপুর ইউনিয়নের ভাদড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ঘটে অবাক করা এ ঘটনা। ব্লেড দিয়ে নিজের বুক কেটে, সেই রক্ত দিয়ে নৌকা মার্কায় সিল দিয়েছেন ফরহাদ হোসেন মাসুদ নামে এক যুবক।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভোটকেন্দ্রে ওই বুথের সব পোলিং অফিসার ও নির্বাচনী প্রার্থীর এজেন্টদের সামনে একই ইউনিয়নের ভাদড়া গ্রামের দুদু সরকারের ছেলে ফরহাদ হোসেন মাসুদ ব্লেড দিয়ে নিজের বুক কেটে রক্ত নিয়ে প্রথমে ব্যালটের নৌকা প্রতীকে লাগান, পরে তিনি নৌকা মার্কায় ভোট প্রদান করেন। এরপর মাসুদ ভোটকেন্দ্রের বাইরে রক্তে রঞ্জিত বুকে নৌকার ব্যাচ পরে ঘুরে বেড়ান।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ফরহাদ হোসেন মাসুদ বলেন, আমি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভালোবাসি। তার বহিঃপ্রকাশ হিসেবে ব্লেড দিয়ে নিজের বুক কেটে, সেই রক্ত দিয়ে প্রাণের প্রতীক নৌকায় ভোট দিলাম।

শেখ হাসিনার প্রতি আস্থা ব্যক্ত করে তিনি বলেন, আমি নিজের বুক কেটেছি। অন্য কারও শরীর রক্তাক্ত করিনি। মানুষের ওপর হামলা বা অত্যাচার চালালে শেখ হাসিনার নেতৃত্বকেই কলংকিত করা হয়। সেটা আমার জানা আছে।

রক্তাক্ত শরীরে ঘুরে বেড়ানোর মাধ্যমে নারী-শিশু-বৃদ্ধ ও হৃদরোগীরা কেউ আতংকিত হয়ে থাকলে ক্ষমা চান তিনি।

জুমবাংলানিউজ/এইচএমজেড