আন্তর্জাতিক

নাচতে নাচতে ব্রিজ ভেঙে ড্রেনে পড়লো বরযাত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পাত্রপক্ষের নাচের তোপে ভেঙে পড়ল ব্রিজ। আর ব্রিজের নিচের নর্দমায় পড়ে যান স্বয়ং বর! বিয়ের সাজে হুড়মুড়িয়ে নর্দামায় পড়াতে কিছুটা আহতও হয়েছেন তিনি৷

ঘটনাটি ঘটে শনিবার রাতে ভারতের নয়ডার হোসিয়ারপুরে। তবে একা পড়েননি বর। পাত্র ছাড়াও দুই শিশুসহ আরো ১৫ জন পড়ে যায় নর্দমায়৷ আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷

গাজিয়াবাদের ব্যবসায়ী অমিত যাদবের সঙ্গে দিল্লির বাসিন্দা সোনমের বিয়ে ঠিক হয়েছিল। হোসিয়ারপুরের বিখ্যাত হল অলিভ গার্ডেনে আয়োজিন করা হয় বিয়ের অনুষ্ঠান।

ব্রিজটি ভেঙে পড়াতে কিছুক্ষণের জন্য আটকেও যায় বিয়ে। কারণ ব্রিজটির সঙ্গেই ছিল বিয়ের মণ্ডপ। এর ফলে বেশ সমস্যাও তৈরি হয়৷ বাড়তি ৩ লক্ষ টাকা দিয়ে ব্রিজ মেরামতের পর শুরু হয় বিয়ে!

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, বিয়ের রীতি অনুযায়ী পাত্রপক্ষ বিয়ে করতে আসার সময় নাচতে নাচতেই আসে৷ সবই চলছিল আনন্দের সঙ্গে৷ কিন্তু বিপত্তি ঘটল ব্রিজের ওপর উঠার পরই৷ ছোট একটি সাঁকো, যা বিয়ের আসর ও মণ্ডপকে যুক্ত করেছে, সেটিই ভেঙে পড়ে৷

ব্রিজটি তৈরি হয়েছিল একটি নর্দমার ওপর৷ আর সেই নর্দমাতে পড়ে যান বর৷ এছাড়া ব্রিজটি ছাড়া বিয়ে বাড়ি থেকে আর কোনো রাস্তাও ছিল না৷ তাই দ্রুত মেরামত করা হয় সেটি৷

প্রত্যক্ষদর্শীরা এবেলাকে জানিয়েছেন, রাস্তা থেকে অলিভ গার্ডেনে ঢুকতে একটি ছোট ব্রিজ পড়ে। সেই ব্রিজের নিচ দিয়ে বড় একটি ড্রেন বয়ে গেছে। বিয়ের অনুষ্ঠানে বরকে নিয়ে যোগ দিতে বরযাত্রীরা ওই ব্রিজটির উপরেই নাচ শুরু করেন। প্রায় ১০ মিনিট ধরে চলে উদ্দাম নাচ। কিন্তু আচমকাই ওই ব্রিজ ভেঙে সোজা ড্রেনের মধ্যে পড়ে যান সবাই।

অলিভ গার্ডেনের নিরাপত্তারক্ষী জানিয়েছেন, বরসহ অন্তত ১২ জন ড্রেনের মধ্যে পড়ে যান। দুর্ঘটনায় আহত হয় দুই শিশুও। জখম হয়েছেন বর অমিত যাদবও। ড্রেনের মধ্যে বেশিরভাগই নিজেদের গয়না ও মোবাইল ফোন হারিয়ে ফেলেন।

ড্রেনটি গভীরে হওয়ায় তাদরকে ওঠাতেও সমস্যা হয়। শেষে পুলিশ ও গ্রামবাসীদের সহায়তায় বরযাত্রীদের ড্রেন থেকে উদ্ধার করা হয়।

সূত্র : নিউজ১৮ টিভি

জুমবাংলানিউজ/এএসএমওআই