অর্থনীতি-ব্যবসা জাতীয় শেয়ার বাজার

নন-লাইফ বীমায় ব্যবস্থাপনা ব্যয়সীমা চূড়ান্ত

পুঁজিবাজার ডেস্ক : সাধারণ বিমা কোম্পানির ব্যবস্থাপনা ব্যয়সীমা নির্ধারণ করে নতুন নীতিমালা করা হয়েছে। গত ৩ ফেব্রুয়ারি ওই নীতিমালার গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে।

নতুন ওই নীতিমালা অনুযায়ী কোম্পানিগুলো অগ্নি ও অন্যান্য বিমার প্রথম ১৫ কোটি টাকা প্রিমিয়াম আয়ের ক্ষেত্রে ৩৫ শতাংশ এজেন্ট-ব্রোকার কমিশন ও পারিশ্রমিকসহ ব্যবস্থাপনা খাতে ব্যয় করতে পারবে। আর নৌ বিমার ক্ষেত্রে ওই হার ২৬ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে।

সাধারণ বিমা কোম্পানির ব্যবস্থাপনা ব্যয়সামী নিয়ে কোম্পানিগুলোর আপত্তির পরিপ্রেক্ষিতে আগের বিধিমালা বাতিলের পর ‘নন-লাইফ ইন্স্যুরেন্স ব্যবসা ব্যবস্থাপনা ব্যয়ের সর্বোচ্চ সীমা নির্ধারণী বিধিমালা-২০১৮’ শীর্ষক ওই বিধিমালা চূড়ান্ত করা হয়েছে।

তথ্যানুযায়ী, অগ্নি ও অন্যান্য বিমার ক্ষেত্রে প্রথম ১৫ কোটি টাকা প্রিমিয়ামের আয়ের ৩৫ শতাংশ ব্যয়ের সুযোগ রাখা হয়েছে। পরবর্তীতে প্রতি ১৫ বছরের জন্য ওই ব্যয়সীমা দুই শতাংশ করে কমিয়ে আনা হয়েছে। একইভাবে নৌ বিমার ক্ষেত্রে প্রিমিয়ামের আয়ের ২৬ শতাংশ ব্যয়ের সুযোগ রাখা হয়েছে। ওই বিমার ক্ষেত্রে পরবর্তীতে প্রতি ১৫ বছরের জন্য ওই ব্যয়সীমা এক শতাংশ করে কমিয়ে আনা হয়েছে।

সেসঙ্গে ব্যবসা শুরুর প্রথম ১০ বছরে কোম্পানিগুলো মোট পরিশোধিত মূলধনের ১০ সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ পর্যন্ত ব্যবস্থাপনা খাতে ব্যয় করতে পারবে। পরবর্তী তিন বছরে বেশি মোট পরিশোধিত মূলধনের ওপর অর্জিত সুদ ও পরবর্তী তিন বছরে পরিশোধিত মূলধনের অর্জিত সুদ কিংবা গ্রস প্রিমিয়ামের সর্বোচ্চ পাঁচ শতাংশের মধ্যে যেটি কম, সেই পরিমাণ অর্থ ব্যয় করার সুযোগ পাচ্ছে কোম্পানিগুলো। আর ব্যবসা শুরুর সাত থেকে পরবর্তী তিন বছর কোম্পানির মোট পরিশোধিত মূলধনের ওপর অর্জিত সুদের তিন চতুর্থাংশ বা গ্রস প্রিমিয়াম আয়ের আড়াই শতাংশের মধ্যে যেটি কম সেই পরিমাণ অর্থ ব্যয় করতে পারবে।

জুমবাংলানিউজ/পিএম