আন্তর্জাতিক

নগ্ন পায়ে সৌদিয়া এয়ারলাইন্সে ভ্রমণ নিষিদ্ধ

এখন থেকে নগ্ন পা বা পা ঢেকে না রাখলে সাউদিয়া বা সৌদি আরবের জাতীয় বিমান সৌদিয়া এয়ারলাইন্সে কোন নারী যাত্রী ভ্রমণ করতে পারবেন না। সম্প্রতি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিমানের যাত্রীদের পোশাক পরিধানের নির্দেশনা দিয়েছে সাউদিয়া কর্তৃপক্ষ।

সেখানে বলা হয়েছে, কোন যাত্রী যদি এমনভাবে পোশাক পরেন যা অন্য যাত্রীদের অশান্তির কারণ হয়, তাহলে তিনি বিমানে ভ্রমণের অধিকার হারাবেন।

এই নিষেধাজ্ঞার মধ্যে নারীদের উদ্দেশ্য করে বলা হয়েছে, যারা হাত বা পায়ের অংশ উন্মুক্ত থাকে এমন পাতলা অথবা ছোটো পোশাক পড়েন, তারা বিমানে ভ্রমণ করতে পারবেন না। পুরুষদের মধ্যে যারা খালি পায়ে থাকবেন বা পা উন্মুক্ত থাকে এমন পোশাক পড়েন তারাও এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বেন।

বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে সমালোচনার সৃষ্টি হলে ড্রেস কোড নিয়ে ইংরেজিতে লেখা ওই বিজ্ঞপ্তি সরিয়ে নেয় সাউদিয়া। জরুরি অবস্থা বা অসচেতনভাবে কেউ যদি বিমানের ভেতর তাদের হাত বা পা পোশাক থেকে বের করে ফেলেন তাহলে করণীয় কি হবে সে বিষযে সাউদিয়ার পক্ষ থেকে স্পষ্ট করে কিছু বলা হয়নি।

সৌদি আরব পৃথিবীর সব থেকে লিঙ্গ বৈষম্যকারী দেশ। লিঙ্গ বৈষম্যের এক আন্তর্জাতিক সূচকে ১৪৪ দেশের মধ্যে এদেশের অবস্থান ১৪১তম। এদেশের নারীদেরকে পুরুষদের কঠোর শাসন ও নিয়ন্ত্রণের মধ্য দিয়ে জীবন-যাপন করতে হয়। তারা গাড়ি চালাতে অনুমতি পায় না, এমনকি চিকিৎসা, পড়ালেখা, বা আদালতে যেতে হলেও তাদের কে পুরুষের অনুমতি নিতে হয়।

এছাড়া দেশটিতে নারীদের ঘরের বাইরে যাওয়ার জন্য পা থেকে মাথা পর্যন্ত কালো কাপড় দিয়ে ঢেকে বের হওয়ার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

Advertisements