অর্থনীতি-ব্যবসা জাতীয় স্লাইডার

ধাক্কা কাটিয়ে উঠেছে রূপালী ব্যাংক

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাংকগুলোর মধ্যে মূলধন ঘাটতির ধাক্কা কাটিয়ে উঠেছে একমাত্র রূপালী ব্যাংক। ২০১৭ সালে ব্যাংকটির ৬৩৭ কোটি টাকা মূলধন ঘাটতি থাকলেও ২০১৮ সালের ডিসেম্বর ২০ কোটি টাকা মূলধন উদ্বৃত্ত রয়েছে রূপালী ব্যাংকের। অন্যদিকে সোনালী ও জনতা ব্যাংকের মূলধন ঘাটতির পরিমাণ ১০ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। ব্যাংক দুটি বিভিন্ন সময় মূলধন ঘাটতি পূরণে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের কাছে অর্থ চেয়েছে। তখন কোনো বরাদ্দ দেওয়া না হলেও রাষ্ট্রীয় ব্যাংকগুলোকে বাঁচিয়ে রাখতে এবারের বাজেটে একটি অংশ রাখা হবে। সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

রূপালী ব্যাংকের ডিসেম্বর ২০১৮ ভিত্তিক অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনে দেখা গেছে, ব্যাংকটি মুনাফা করেছে ৩৭৬ কোটি টাকা। এর আগের বছর মুনাফা ছিল ৫৪১ কোটি টাকা। ২০১৬ সালে ব্যাংকটির নিট লোকসান হয়েছিল ১শ’ কোটি টাকা।

এ বিষয়ে রূপালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পআমি দায়িত্ব নেওয়র পর লক্ষ্যমাত্রা ঘোষণা করেছিলাম ২০১৭ সাল হবে রূপালী ব্যাংকের ঘুরে দাঁড়ানোর বছর। আর ২০১৮ সাল হবে শীর্ষে পৌঁছানোর। আমাদের সেই লক্ষ্যমাত্রা অর্জন হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে ব্যাংক খাতকে বাাঁচাতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ১ হাজার ৫শ’ কোটি টাকা। ২০১৫-১৬ ও ২০১৬-১৭ অর্থবছরে এ খাতে দুই হাজার কোটি টাকা করে বরাদ্দ রাখা হয়। ২০১৪-১৫ অর্থবছরে পাঁচ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ ছিল। ওই বছর ব্যাংকগুলোকে দেওয়া হয় ৫ হাজার ৩০০ কোটি টাকা। ২০১৩-১৪ অর্থবছরে বাজেটে বরাদ্দ ছিল ৪২০ কোটি টাকা; কিন্তু দেওয়া হয় পাঁচ হাজার কোটি টাকা। ২০১২-১৩ অর্থবছর এক হাজার ৬৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখলেও ছাড় করা হয় ৫৪১ কোটি।

জুমবাংলানিউজ/পিএম