খেলা-ধুলা

দোনারুমার মিলানের কাছে ট্রফি হারালো বুফনের জুভেন্টাস

দুজনের মধ্যে মিল যৎসামান্যই, অমিলই বেশি। সবচেয়ে মজার মিলটা হলো নামে। দুজনের নামের শুরুটা জিয়ানলুইজি দিয়ে। একজন জিয়ানলুইজি দোনারুমা, অপরজন জিয়ানলুইজি বুফন। একজন ছিটেফোঁটা আলো ছড়াচ্ছেন মাত্র, অপরজন তো কিংবদন্তী।

তবে গোলরক্ষকদের নৈপুণ্য দেখানোর ম্যাচে ১৭ বছরের পুঁচকে দোনারুমার কাছে হেরে গেলেন ৩৮ বছর বয়সী ইতালিয়ান বুফন। আর এর মধ্য দিয়ে ইতালিয়ান সুপার কাপের ফাইনালে এসি মিলানের কাছে পেনাল্টি শুটআউটে ৪-৩ গোলে হেরে শিরোপা হাতছাড়া হলো জুভেন্টাসের!

কাতারের দোহায় জসিম বিন হামাদ স্টেডিয়ামে শুক্রবার রাতে হওয়া ম্যাচটিতে নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময়ে ১-১ গোলে ড্র থাকার পর ম্যাচ গড়ায় পেনাল্টিতে। আর এখানেই দোনারুমা আর্জেন্টাইন তারকা পওলো দিবালার নেয়া পঞ্চম শটটি রুখে দেন। এতে ২০১১ সালের পর প্রথম কোনো শিরোপা জয় করে ভিনসেঞ্জো মন্টেলার শিষ্যরা।

৯০ মিনিটের লড়াইয়ে খেলা শুরু ১৮ মিনিটে অধিনায়ক জর্জো কিয়েল্লিনির গোলে এগিয়ে যায় জুভেন্টাস। তবে সেই আনন্দ বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি তাদের, ৩৪ মিনিটেই জাকোমো বোনাভেনতুরা গোলে সমতায় ফেরে এসি মিলান।

এরপর প্রথমার্ধে উল্লেখযোগ্য কোনো নৈপুণ্য দেখাতে পারেনি কোনো দল বা খেলোয়াড়-ই। দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণ হলেও গোলের দেখা মেলেনি। অতিরিক্ত সময়ও সমতায় শেষ করে দুই দল।

টাইব্রেকারে এসি মিলানের বোনাভেনতুরা, ইউরাই কুচকা, সুসো ও মারিও পাসালিচ গোল করতে পারলেও লক্ষ্যভেদে ব্যর্থ হন জানলুকা লাপাদুলা। তার প্রথম শটটিই রুখে দেন বুফন।

অন্যদিকে, জুভেন্টাসের মারিও মানজুকিচ বল গোল-পোস্টের বাইরে মারলে এবং পাওলো দিবালা শট দোনারুমা রুখে দিলে শেষ হাসি হাসে এসি মিলান।

ভিডিও ‍নিউজ : মুস্তাফিজ কি? তার প্রমাণস্বরূপ মুস্তাফিজকে নিয়ে বানানো আইসিসি’র একটা ভিডিও

Add Comment

Click here to post a comment