জাতীয় বিভাগীয় সংবাদ রংপুর

দিনাজপুর-ঢাকা রুটে ট্রেনের যাত্রা শুরু

আধুনিক কোচ সম্বলিত দিনাজপুর-ঢাকা রূটে ‘দ্রুতযান এক্সপ্রেস’ ট্রেন সার্ভিসের উদ্বোধন করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, এমপি। বিজয় দিবসের প্রথম প্রহরে শুক্রবার সকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিনাজপুর-ঢাকা রুটের ট্রেন উদ্বোধন করেন। পরে ওই ট্রেনে করেই তার নির্বাচনী এলাকা চিরিরবন্দরে যান। এসময় তার সফরসঙ্গী ছিলেন জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম।

উদ্বোধন শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রেল যোগাযোগ নির্বিঘ্ন করতে দুই লেন বিশিষ্ট রেল লাইন নির্মাণ করা হচ্ছে। অচিরেই দিনাজপুর জেলার বিরল উপজেলার সঙ্গে ভারতের রেলযোগাযোগ চালু করা হবে। রেল যোগাযোগ আরো নির্বিঘ্ন করতে এবং রেলওয়ে যাত্রীদের সেবার মান বাড়াতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়া হবে। এছাড়া ৫০ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে রেলের নতুন বগী (কোচ) নির্মাণ করা হচ্ছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, অচিরেই দিনাজপুরের বিরলের সাথে ভারতের রাধিকাপুরের রেলযোগাযোগ চালু করা হবে এবং এ লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই রেল লাইন মিটারগেজ থেকে ব্রডগেজে রূপান্তর করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম। দিনাজপুর রেলওয়ে স্টেশন চত্বরে আয়োজিত এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলীয় জোনের মহাব্যবস্থাপক খায়রুল আলম।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, বিগত বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার রেলওয়েকে ধ্বংস করেছিল, লোকসান দেখিয়ে দেশের বিভিন্ন রেলওয়ে স্টেশন বন্ধ করে দিয়েছিল। কিন্তু শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর শুধুমাত্র রেলওয়ের জন্য আলাদা মন্ত্রণালয় সৃষ্টি করে রেলকে আধুনিক ও যুগোপযোগী করার পদক্ষেপ গ্রহণ করে।

তিনি বলেন, ব্রিটিশ আমলে যে পয়েন্টে রেল চলাচল করেছিল, সেই পয়েন্টগুলোর রেললাইন সংস্কার করে ভারতের সাথে রেল যোগাযোগ বৃদ্ধি করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, বিরল দিয়ে অচিরেই ভারতের সাথে রেলযোগাযোগ আবার চালু করা হবে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জাতীয় সংসদের হুইপ বলেন, বিএনপি ও জামায়াত ক্ষমতায় থাকাকালীন রেলকে ধ্বংস করেছে আর ক্ষমতা থেকে চলে যাওয়ার পর বিভিন্ন স্থানে রেলওয়ের ওপর নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড চালিয়েছে।
তিনি বলেন, বর্তমান সরকার দেশের মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে রেলকে আধুনিকায়ন করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। এই অবস্থায় রেলওয়ের উপর কেউ নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড চালালে তা কঠোর হস্তে দমন করা হবে।
হুইপ ইকবালুর রহিম দিনাজপুরে রেলওয়ের আরো সিট ও টিকেট বৃদ্ধি করার আহ্বান জানান।
বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলীয় জোনের মহাব্যবস্থাপক খায়রুল ইসলাম জানান, আধুনিক এই ট্রেনের ১২টি বগীতে এসি ও নন এসি সার্ভিসসহ মোট ৮৫২ জন যাত্রী ভ্রমণ করতে পারবেন।

তিনি জানান, ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানী করা এই নতুন ১২টি বগিতে এসি বাথ-২২টি, নন এসি বাথ-২২টি, প্রথম শ্রেণির-৪৮টি, এসি চেয়ার-৮০টি, শোভন চেয়ার-৬৭৬টি সিট সংযোজন করা হয়েছে।
অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম ও পুলিশ সুপার হামিদুল আলম।

ভিডিওঃ “টাইটানিক” সিনেমা থেকে মুছে ফেলা হয়েছিল যে সিন! [দেখুন ভিডিওতে]

Add Comment

Click here to post a comment