জাতীয় রাজনীতি স্লাইডার

তফসিল ঘোষণার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় যা জানালেন কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক :  ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচনে আসা না আসা প্রসঙ্গে সরকার এবং আওয়ামী লীগের ভাবনা তুলে ধরে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেছেন: আমরা ভালোর জন্য আশা করে আছি, যেকোন মন্দ মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছি।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলটির সম্পাদকমণ্ডলীর বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

এর আগে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকে প্রশ্ন করা হয়: গণভবনে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সঙ্গে দ্বিতীয় দফা সংলাপের পর ঐক্যফ্রন্টের প্রত্যাশা পূরণ না হওয়ার ঘোষণা, সঙ্গে দাবি আদায়ে রাজনৈতিক কর্মসূচি দেওয়ার পরও কী আওয়ামী লীগ প্রত্যাশা করছে; তারা নির্বাচনে আসবে?

এর জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন: সংলাপের পর আমাদের যে অবস্থান সেটা প্রতিদিনই স্পষ্ট করেছি। আপনাদের মাধ্যমে আবারও জাতিকে জানিয়ে দিতে চাই, আমরা ভালোর জন্য আশা করে আছি, যেকোনো মন্দ মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছি।

বিএনপির দুর্নীতির দায়ে সাজা প্রাপ্ত হয়ে কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার প্রসঙ্গে তিনি বলেন: খালেদা জিয়া জেলে থেকে চিকিৎসা করালেও যে স্ট্যাটাস, জেলের বাইরে থাকলেও সেই একই স্ট্যাটাস। কেননা খালেদা জিয়া সংলাপে অংশ নিতে পারছেন না। বাইরে থাকলেই কি তিনি সংলাপে অংশ নিতে পারতেন?

আওয়ামী লীগের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সাংগঠনিক এ নেতা বলেন: একজন কারাবন্দীর সেই সুযোগ (রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে অংশ নেওয়ার) নেই। বরং আমি মনে করি, শি ইজ সেইভ। বাইরে থাকলেও হাসপাতালে হাসপাতালে ডাক্তার-নার্সদের বাইরে কেউ তার সঙ্গে কথা কথা বলতে পারবে না। জেলের বাইরে থাকলেও একটা কারাবিধি আছে তাকে ওই কারাবিধি অনুযায়ী চলতে হবে।

এক আসন থেকে একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী থাকলেও তাতে কোন সমস্যা দেখছেন না আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন: যে কেউ মনোনয়ন চাইতে পারে, মনোনয়ন চাওয়া যে কারও যে গণতান্ত্রিক অধিকার। এটাই ইন্টার্নাল ডেমোক্রেসির বিউটি। মনোনয়ন অনেকেই চাইবেন কিন্তু আমাদের মনোনয়ন বোর্ডের একটি সভা হবে, সেখানে যাচাই-বাছাই করে যাকে উইনেবল মনে হবে, তাকেই দলের পক্ষ থেকে মনোনয়ন দেওয়া হবে।

শরিকদের ক্ষেত্রেও এ শর্ত প্রযোজন্য হবে বলে জানিয়ে কাদের বলেন: আমরা জয়ের জন্যই তো নির্বাচন করছি। আমাদের সঙ্গে নির্বাচনের জোটে যারা আছেন, তাদের যারা প্রার্থী আছেন; আমাদের ওইখানে যারা প্রার্থী আছেন, তাদের মধ্য থেকে যিনি উইনেবল বলে বিবেচিত হবেন তাকেই মনোনয়ন দেওয়া হবে।

জুমবাংলানিউজ/পিএম