বিনোদন

ডনের সঙ্গে সামিরার এই ছবিগুলো কে তুলেছিল

ঢাকাই চলচ্চিত্রের অমর নায়ক সালমান শাহ। ক্যারিয়ারের তুঙ্গে থাকা অবস্থায় ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর তিনি রহস্যজনকভাবে মৃত্যুবরণ করেন। লাশ উদ্ধারের পর ধারণা করা হয় তিনি আত্মহত্যা করেছেন। কিন্তু পরিবারের দাবি, তাকে খুন করা হয়েছে।

তার মৃত্যু নিয়ে এই রহস্যের জট দুই দশক পেরিয়ে গেলেও আজ পর্যন্ত খোলেনি। সেই রহস্যে নতুন করে ঘি ঢেলে দিলেন আমেরিকা প্রবাসী রুবি সুলতানা। এক ভিডিও বার্তা দিয়ে তিনি জানান, সালমান শাহ আত্মহত্যা করেনি। তাকে খুন করা হয়েছে। এই খুনের সঙ্গে জড়িত সামিরা ও তার পরিবার।
এই তথ্যের পর তোলপাড় হয়ে যায় সারা দেশজুড়ে। নতুন করে আলোচনায় আসে সালমানের মৃত্যু রহস্য। ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে সালমান ও তার স্ত্রী নানা রকম ছবি। তারমধ্যে ভাইরাল হয়েছে অভিনেতা ডনের সঙ্গে স্পষ্ট করে সামিরার একটি ছবি। যেখানে ডন বসে আছেন এক পাশে। আর সামিরা অন্য পাশে বসে ম্যাগাজিন পড়ছেন।

আরও একটি ছবিতে ডনকে দেখা গেছে অন্তরঙ্গ অবস্থায় একজন নারীর সঙ্গে। দাবি করা হচ্ছে এটিও সামিরার ছবি। তবে সামিরার বর্তমান স্বামী মোস্তাক ওয়াইজ জাগো নিউজকে বলেন, ‘এই ছবিটি সামিরার নয়। সামিরা আমাকে বলেছে এ ছবির পেছনের কাহিনি। এটা ‘আশা ভালোবাসা’ সিনেমার শুটিং চলাকালীন তোলা। ডনের সঙ্গে যে মেয়েটিকে দেখা যাচ্ছে সে সামিরা নয়।

ছবিটির মেয়ে নায়িকা সাবরিনা। ‘আশা ভালোবাসা’র মূল নায়িকা ছিলেন শাবনাজ। নায়ক সালমান শাহ। সাবরিনা ছিল সেই ছবির পার্শ্বনায়িকা। ডনের সঙ্গে দুষ্টুমি করে ঘরের ভেন্টিলেটরের ফাঁক দিয়ে ছবিটি তুলেছিলেন সালমান শাহ। এই ছবি নিয়ে বিভিন্ন সময় সালমান শাহ দুষ্টুমি করেছে ডনের সঙ্গে।’

অন্য ছবিটি নিয়ে মোস্তাক বলেন, ‘সামিরা যেটাতে বসে ম্যাগাজিন দেখছিলো সেই ছবিটি সালমান নিজেই তুলছিলো। ডনের সঙ্গে সালমানের খুব ভালো বন্ধু ছিলো। সেইজন্য তার সঙ্গে সালমানের পরিবারের সঙ্গেও ভালো সম্পর্ক ছিলো। এই ছবিগুলো ছড়িয়ে সামিরাকে হেয় করার চেষ্টা চলছে। এছাড়াও আরও কিছু ছবি ডনের সঙ্গে সামিরার প্রকাশ পাচ্ছে। সেইসবগুলোই ফটোশপের কারসাজি।’

Advertisements