অর্থনীতি-ব্যবসা আন্তর্জাতিক

জুতো বেঁচে ব্যাগের দামও নিচ্ছে বাটা, জরিমানা গুনলো নয় হাজার টাকা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : জুতো কিনতে গিয়ে টাকা দিতে হচ্ছে ব্যাগের জন্যও। জুতোর দামের সাথে রাখা হয় কাগজের হাতব্যাগের দাম ৩ টাকা। আর এটাই  ভালো লাগে নি ক্রেতার।বাটা কোম্পানির বিরুদ্ধে নালিশ করে দিলেন ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তরে। ফলও মিলল হাতে নাতে। ত্রুটিপূর্ণ সেবার জন্য ৯ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হল ‘বাটা ইন্ডিয়া’-কে।ভারতের চন্ডীগড়ের বাসিন্দা দীনেশ প্রসাদ রাতুরি বাটা শোরুম থেকে একজোড়া জুতো কেনেন। জুতোর দাম ছিল ৩৯৯ টাকা। কিন্তু কাগজের ব্যাগের জন্য আরও তিন টাকা দিতে হয় তাকে।বিষয়টি মন থেকে মেনে নিতে পারেননি দীনেশ প্রসাদ। সরাসরি ক্রেতা সুরক্ষা দফতরে অভিযোগ জানান। ব্যাগের জন্য দেওয়া বাড়তি তিন টাকা ফেরত চান তিনি। সেই সঙ্গে ক্ষতিপূরণও দাবি করেন।তার যুক্তি ছিল, নিজেদের ব্র্যান্ডের নাম লেখা ব্যাগের জন্যই টাকা নিচ্ছে বাটা। পকেটের টাকা ফেলে খামোকা ওদের হয়ে প্রচার করবেন কেন মানুষ?

শেষ পর্যন্ত দীনেশ প্রসাদের পক্ষেই রায় দেয় ক্রেতা সুরক্ষা দফতর। বলা হয়, জিনিস বিক্রি করার সময় তা বয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য গ্রাহককে ব্যাগ জোগানোর দায়িত্বও দোকানেরই। ব্যাগের জন্য নেওয়া বাড়তি তিন টাকা দীনেশ প্রসাদকে ফেরত দিতে হবে। আইনি প্রক্রিয়ার খরচ বাবদ দিতে হবে এক হাজার টাকা। মানসিক ভাবে হেনস্থা করার জন্য আরও তিন হাজার টাকা দিতে বলা হয়। পাশাপাশি, রাজ্য ক্রেতা সুরক্ষা দফতরে জমা দিতে বলা হয় পাঁচ হাজার টাকা।

কিন্তু দীনেশ প্রসাদ না হয় ক্রেতা সুরক্ষা দফতরে অভিযোগ জানিয়েছিলেন। সামান্য তিন টাকার জন্য অনেকেই এত ঝামেলা পোহাতে চান না। তাই ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের নির্দেশ, কাগজের ব্যাগের জন্য কোনও গ্রাহকের কাছ থেকে টাকা নিতে পারবে না বাটা ইন্ডিয়া।

জুমবাংলানিউজ/পিএম