আন্তর্জাতিক

জীবন্ত গলদা চিংড়ি ফুটন্ত পানিতে ফেলে আর সেদ্ধ নয়

এখন থেকে আর জীবন্ত গলদা চিংড়ি বা লবস্টারকে ফুটন্ত পানিতে ফেলে সেদ্ধ নয়, এভাবে ‘হত্যা’ করার আগে তাদের ‘অচেতন’ করে নেওয়ার নির্দেশ জারি করল সুইস সরকার। প্রচলিত রন্ধনপদ্ধতিতে ফুটন্ত পানিতে ফেলেই লবস্টার বা গলদা চিংড়িকে খাওয়া ও পরিবেশনের উপযোগী করা হয়ে থাকে।

সুইজারল্যান্ডের বার্নের প্রাণী রক্ষা আইনের সংশোধিত সংস্করণে বলা হয়েছে, জীবন্ত গলদা চিংড়িকে ফুটন্ত পানিতে ফেলে হ্ত্যা করা যা রেস্তোরাঁগুলোতে খুবই প্রচলিত তা শিগগিরই বন্ধ করতে হবে। মার্চের ১ তারিখ থেকে এভাবে ‘হত্যা’ বন্ধ করার আদেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। জীবন্ত সেদ্ধ করার আগে তাদের দুটি পদ্ধতি ব্যবহার করে অচেতন করার নির্দেশনাও জারি করা হয়েছে।

সুইস গণমাধ্যম আরটিএস এই দুটি পদ্ধতি সম্পর্কে বলছে- একটি হলো ইলেকট্রিক শক, আরেকটি যান্ত্রিকভাবে গলদা চিংড়ির মস্তিষ্ককে বিকল করে দেওয়া।

প্রাণী অধিকারবিষয়ক আইনজীবী ও কিছু কিছু বিজ্ঞানীরা মনে করেন, গলদা চিংড়ি ও এ ধরনের প্রাণীগুলোর (শক্ত আবরণ বা খোলসযুক্ত জলজ প্রাণী) স্নায়ু খুবই অনুভূতিপ্রবণ হয়। তাই ওই ‘নির্মম’ পদ্ধতিতে তাদের হত্যা করলে তারা কষ্ট পায়।

সেই সাথে বরফ বা বরফজলে গলদা চিংড়ি পরিবহনও নিষিদ্ধ করেছে সুইস সরকার।