আন্তর্জাতিক ট্র্যাভেল

আপনি খুব বেশি সাহসী হলে ঘুরে আসুন এই স্থানগুলোতে!

নিজেকে নিজে সাহসী বলে যদি মনে করেন ঘুরে আসতে পারেন নিচে দেয়া নামের কয়েকটি স্থানে। কলকাতায় এমন অনেক জায়গা রয়েছে যেখানে যেতে হলে আপনার সাহস থাকাটা একান্ত জরুরী। এমনিতেই কলকাতা শহর হলো প্রাসাদ নগরী। আর এই শহরেই আছে গা ছমছম করার মত একাধিক স্থান।

হাওড়া ব্রিজের নিচের ঘাট: যদি আপনার অনেক সাহস থাকে তবে এই স্থানটিতে ঘুরে আসলেও আসতে পারেন হাওড়া ব্রিজের নিচের ঘাটে। ঘাটমল্লিক ঘাট ফুল বাজারের নীচে এক মহিলাকে সাদা শাড়ি পরে ঘুরতে দেখার দাবি করেছেন সেখান ঘুরতে যাওয়া অনেকেই।

খিদিরপুরের ডক: কলকাতা শহরের ভুতুড়ে স্থান গুলির মধ্যে অন্যতম হলো খিদিরপুরের ডক। এখানে মাঝরাতে ওঠানামা করে ক্রেন। শোনা যায় অদ্ভুত সব শব্দ। বহু স্থানীয় বাসিন্দার দাবি, রীতিমতো গা ছমছমে এক স্থান এই ডক।

রয়টার্স বিল্ডিং: কর্মীরা অনেকেই সন্ধ্যার পর রয়টার্স বিল্ডিংয়ে কাজ করতে চাইতেন না। আশপাশ থেকেও নাকি মধ্যরাতে শোনা যায় কি শব করা শব্দ, এমনই দাবি শোনা যায়।

ন্যাশনাল লাইব্রেরি: ন্যাশনাল লাইব্রেরির নামেও আছে অভিযোগ। এই লাইব্রেরীতে নাকি গা-ছমছম করার জন্য কুখ্যাত। অনেকেই বলেন, করিডর দিয়ে রাতের দিকে নাকি ভূত পেতের উপস্থিতি টের পাওয়া যায়।

নিমতলা শ্মশান: কলকাতার অন্যতম রোমহর্ষক ভুতুড়ে স্থানের তালিকায় এই শ্মশান নাম সবার উপরে থাকার কথা। সাহস থাকলে ঘুরে আসতে পারেন।

রবীন্দ্র সরোবর মেট্রো স্টেশন: আত্মহত্যা করার জন্য কুখ্যাত এই মেট্রো স্টেশন। কেন আত্মহত্যাপ্রবণ মানুষেরা এই স্টেশনকেই বেছে নেন, তা আজও রহস্য। তাই এটাও একটা রহস্যময় জায়গা।

রয়্যাল ক্যালকাটা গলফ ক্লাব: মানুষের মুখে মুখে শোনা যায়, প্রতি শনিবার রাতে পূর্ণিমার আলোয় নাকি উইলিয়াম জর্জের ঘোড়া ও তার মালিকের আবছা মূর্তি এখানে দেখা যায়।



সর্বশেষ খবর