ক্যাম্পাস জাতীয় বিভাগীয় সংবাদ ময়মনসিংহ শিক্ষা

জাককানইবিতে ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে খাবারের দামে নৈরাজ্য

জাককানইবি প্রতিনিধি: জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক ১ম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়েছে। ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে ক্যাম্পাসে বইছে উৎসবের আমেজ। ভর্তিচ্ছু নবীনদের পদচারনায় মুখরিত ক্যাম্পাস প্রাঙ্গণ। দূর-দূরান্ত থেকে পরীক্ষা দিতে আসা এসব নবীনদের আবাসন ব্যবস্থাসহ সার্বিক সহযোগীতায় সরব বিভিন্ন জেলাভিত্তিক এ্যসোসিয়েশনগুলো। তাদের সাথে পাল্লা দিয়ে সমান তালে সরব একদল অসাধু ব্যবসায়ী।

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়

এ বছর ২০১৮-১৯ সেশনে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে চারটি অনুষদের অধীনে ২৩টি বিভাগে আবেদনের করেছেন ৩৩,০২২ জন। বিপুল সংখ্যক এই শিক্ষার্থীদের অধিকাংশই ময়মনসিংহের বাসিন্দা নয়। তাই দূর-দূরান্ত থেকে আসা এসব শিক্ষার্থী ও  অভিভাবকদের বিশ্ববিদ্যালয়ের আশে পাশেই অবস্থান করতে হয়। জনসমাগমের এই উর্ধমুখী গতির সুযোগ নিয়ে তাই বাড়িয়ে দেয়া হয়েছে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রীর দাম।

সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী সারেং, ভোজনবিলাস, বাঙ্গালীর ভোজ ও সাওদাসহ খাবারের হোটেলগুলোতে খাবারের দাম কয়েক গুণ দাম বেড়েছে।

এরকম অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধিতে ক্ষোভ প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের দশম ব্যাচের শিক্ষার্থী রাহাত তালুকদার বলেন, ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে খাবারের দাম বৃদ্ধি সত্যই হতাশাজনক। অতি মুনাফার লোভে হোটেল মালিকেরা দ্বিগুণ দাম নির্ধারণ করে রেখেছে। পূর্বে যে মাছ, মাংস ৩০ টাকায় বিক্রি হতো এখন তা ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে, ৫ টাকার রুটি পরটা ১০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এতে করে আগত ভর্তিচ্ছুদের পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়টিতে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীদের ও বেকায়দায় পড়তে হচ্ছে। হোটেল মালিকদের অতি মুনাফামুখী প্রত্যাশার সামনে কার্যত জিম্মি শিক্ষার্থী ও অভিভাবকেরা।

চারদিকে যখন অতি মুনাফামুখী প্রত্যাশার ডামাডোল সেখানে ব্যতিক্রমী, প্রশংসনীয় ছিলো বিশ্ববিদ্যালয়টির শাখা ছাত্রলীগের ভূমিকা। শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল হাসান রাকিবের নেতৃত্বে খাদ্যমূল্য না বাড়াতে হোটেলগুলোতে অভিযান চালানোর পাশাপাশি ছাত্রলীগ কর্তৃক আগত ভর্তিচ্ছু নবীনদের বিশুদ্ধ খাবার পানির বোতল ও কলম দিয়ে বরণ করে নেয়া ও অভিভাবকদের বসার জন্য চেয়ার ব্যবস্থা করাসহ শিক্ষার্থীদের সহযোগিতায় হেল্প ডেস্ক বসিয়ে নজর কাড়ে সবার।

এ সম্পর্কে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়টির শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল হাসান রাকিব বলেন, যেকোনও ভালো কাজে ছাত্রলীগ সম্পৃক্ত ছিল, আছে ও থাকবে। ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

জুমবাংলানিউজ/একেএ