খেলা-ধুলা

জন্মদিনে কোথায় শাবনূর?

ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় নায়িকা শাবনূরের ৩৮তম জন্মদিন শনিবার (১৭ ডিসেম্বর)। ১৯৭৯ সালের এ দিনে যশোরের শার্শা উপজেলার নাভারনে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। পক্ষ থেকে শাবনূরকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা। এবারের জন্মদিন কোথায়, কীভাবে কাটাচ্ছেন এ অভিনেত্রী?

এ প্রশ্নে শাবনূরের ব্যক্তিগত সহকারী সেলিম সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘স্বামী-সন্তান ও পরিবারের অন্য সদস্যদের নিয়ে বর্তমানে অস্ট্রেলিয়াতে আছেন শাবনূর। সেখানেই ঘরোয়াভাবে জন্মদিন পালন করবেন।’

সেলিম আরো জানান, জানুয়ারিতে দেশে ফিরবেন ‘স্বপ্নের ঠিকানা’-খ্যাত এ নায়িকা।

পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান মানিক সংবাদমাধ্যমকে জানালেন, দেশে ফিরেই শাবনূর ‘এত প্রেম এত মায়া’র শুটিং করবেন। ঈদুল আজহায় শাবনূর দেশে ফিরলে ছবিটির শুটিং করার কথা ছিল। তখন না ফেরায় পিছিয়ে যায় ‘এত প্রেম এত মায়া’।

শাবনূরের প্রকৃত নাম কাজী শারমিন নাহিদ নূপুর। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে বহু তারকার আবিষ্কারক পরিচালক এহতেশামের হাত ধরে চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে তার। এহতেশাম তাকে নতুন নাম দেন। নূপুর থেকে হয়ে যান শাবনূর বা রাতের তারা।

১৯৯৩ সালে মুক্তি পায় এতেহশামের পরিচালনায় শাবনূরের প্রথম ছবি ‘চাঁদনী রাতে’। সাব্বিরের বিপরীতে অভিনীত ছবিটি ব্যবসায়িকভাবে ব্যর্থ হয়। জহিরুল হকের ‘তুমি আমার’-এ অভিনয়ের মধ্য দিয়ে শাবনূরের ভাগ্য খুলে যায়। এর মধ্য দিয়ে সালমান শাহ-শাবনূর জুটি গড়ে উঠে। এরপর তারা একে একে ‘সুজন সখি’, ‘স্বপ্নের ঠিকানা’, ‘স্বপ্নের পৃথিবী’, ‘তোমাকে চাই’ ও ‘আনন্দ অশ্রু’সহ ১৪টি ছবিতে অভিনয় করেন। সালমানের প্রয়াণের পর অন্য নায়কদের সঙ্গেও সফল জুটি গড়ে তোলেন শাবনূর।

রিয়াজের বিপরীতে ‘মন মানেনা’, ‘বিয়ের ফুল’, ‘নারীর মন’, ‘ভালোবাসি তোমাকে’ ও ‘বুক ভরা ভালোবাসা’সহ অনেক হিট সিনেমা উপহার দেন শাবনূর। এছাড়া ফেরদৌস, ওমর সানি, মান্না, শাকিব খানের সাথে অভিনয় করে সফল হয়েছেন। ২০০৬ সালে মোস্তাফিজুর মানিকের ‘দুই নয়নের আলো’র জন্য পান জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। এছাড়া বাচসাস পুরস্কারসহ একাধিক পুরস্কার পেয়েছেন এই গুণী অভিনেত্রী।

ভিডিওঃ ফুলকপিতে সাপ পাওয়া গেছে; ভিডিওতে দেখুন

Add Comment

Click here to post a comment