আইন-আদালত জাতীয় স্লাইডার

ছয় মাসের মধ্যে বড় পুকুরিয়া দুর্নীতি মামলা নিষ্পত্তির নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক : ছয় মাসের মধ্যে বড় পুকুরিয়া কয়লা খনি দুর্নীতি মামলা নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এর ফলে ১০ বছর ধরে বন্ধ থাকা মামলাটি এখন ফের সচল হলো বলে জানিয়েছেন দুদকের আইনজীবী। মামলা বাতিলে সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার আমিনুল হকের করা আবেদনের প্রেক্ষিতে জারি করা রুল খারিজ করে সোমবার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ নির্দেশনা দেন।

আদালতে দুর্নীতি দমন কমিশনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক। অন্যদিকে ব্যারিস্টার আমিনুল হকের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার অনীক আর হক।

পরে দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, মামলা বাতিলে ব্যারিস্টার আমিনুল হকের আবেদন খারিজ হয়ে গেছে। এখন নিম্ন আদালতে এ মামলা চলতে বাধা নেই। এছাড়া এ মামলা ছয় মাসের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

তিনি জানান, হাইকোর্টের নির্দেশে ২০০৯ সাল থেকে এ মামলাটির সব কার্যক্রম বন্ধ ছিল। আজকের আদেশের ফলে মামলাটি এখন সচল হলো।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমিন উদ্দিন মানিক জানান, দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি থেকে কয়লা উত্তোলন, ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণে ঠিকাদার নিয়োগে অনিয়ম এবং রাষ্ট্রের ১৫৮ কোটি ৭১ লাখ টাকা ক্ষতি ও আত্মসাতের অভিযোগে দুদকের সহকারী পরিচালক মো. নাজমুল আলম ২০০৮ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি শাহবাগ থানায় এই মামলা দায়ের করেন। ওই বছরের ৫ অক্টোবর ১৬ আসামির বিরুদ্ধে দুদকের উপ- পরিচালক মো. আবুল কাসেম ফকির দণ্ডবিধি আইনের ৪০৯/১০৯ তৎসহ ১৯৪৭ সনের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় অভিযোগপত্র দাখিল করেন। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে এ মামলিাটি করা হয়।

জুমবাংলানিউজ/পিএম